স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি : ‘স্বপ্নের’ রথযাত্রা নিয়েও মতবিরোধ৷ আর তা এমন পর্যায়ে পৌঁছল রীতিমত হাতাহাতি চলল বিজেপির বৈঠকে৷ গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব এভাবে প্রকাশ্যে আসায় চরম অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির৷

শনিবার বিজেপির ডাকা সাংগঠনিক সভায় গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে উত্তাল হয়ে উঠল সিউড়ি রামকৃষ্ণ সভাগৃহ৷ জেলা কমিটি থেকে বাদ পড়া অনিল সিং এবং সহ-সভাপতি নারায়ন মণ্ডল তাদের ক্ষোভ উগরে দেন বৈঠকে৷ ফলে রথ যাত্রার আগেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে সরগরম বীরভূম জেলা বিজেপি৷

তবে এই বিষয়টি স্বীকার করতে চাননি জেলা সভাপতি রামকৃষ্ণ রায়৷ তিনি বলেন ‘অনিল সিং এবং নারায়ণ মণ্ডলকে জেলা কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে৷ আমি রাজ্য নেতৃত্বের নির্দেশেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি৷ এই বৈঠকে একটু চিৎকার চেঁচামেচি হয়েছে বটে, তবে কোনও হাতাহাতি হয়েছে কিনা তা আমার চোখে পড়েনি।’

বিজেপি জেলা সভাপতি আরও জানান, ‘শনিবার রথযাত্রা নিয়েই আমাদের বৈঠক ডাকা হয়েছিল৷ আগামী ১৪ই ডিসেম্বর তারাপীঠ থেকে রথ বেরবে। এই রথের উদ্বোধনে থাকছেন সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷ সেই দিন রামপুরহাটে একটি জনসভারও আয়োজন করা হয়েছে৷ রথ চারদিন বীরভূমের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরবে।’

অনিল সিং বলেন, ‘আমি জেলা কমিটির সম্পাদক ছিলাম, আমাকে যে জেলা কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে তা আমি এখনও জানি না৷ আমাকে বাদ দিতে গেলে দুই তৃতীয়াংশ মেজরিটি থাকতে হবে, আমি তার কপি নিতে এসেছিলাম। কেন আমাকে জেলা কমিটি থেকে বাদ দেওয়া হল তার চিঠিও আমি এখনও হাতে পাইনি৷ জেলা সভাপতির সাথে অনেকক্ষণ ধরে কথা হয় এ বিষয়ে৷ এই নিয়ে ওনার সাথে কথা কাটাকাটি হয় আমার৷ আমি জানি না ওনার কি ব্যাক্তি স্বার্থে আঘাত পড়েছে, তাই আমাকে বাদ দেওয়া হয়েছে জেলা কমিটি থেকে৷ উনি সংবিধান মেনে এ কাজ করেননি৷ নিজের ইচ্ছা মত আমদের কয়েকজনকে বাদ দিয়েছেন।’