মিলান: বনধের নামে বন্ধ্যাত্ব বরদাস্ত করা হবে না৷ রাজ্যবাসী বনধের রাজনীতি প্রত্যাখ্যান করেছেন৷ পরিষ্কার বিজেপির দিন শেষ৷ ইতালির মিলান শহরে শিল্প বিনিয়োগের সন্ধানে যাওয়া মুখ্যমন্ত্রী এমনই প্রতিক্রিয়া দিলেন৷

উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরের দাড়িভিট স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ ঘিরে বিক্ষোভে গুলিতে মৃত্যু হয় দুই ছাত্রের৷ এর প্রতিবাদে বুধবার বিজেপি ১২ ঘণ্টার বনধের ডাক দিয়েছে৷ আর এই বনধ নিয়েই ইতালিতে শিল্প বিনিয়োগের সন্ধানে যাওয়া মুখ্যমন্ত্রী কড়া বার্তা দিলেন৷

আরও পড়ুন: বনধে অশান্তি পাকানোয় বালুরঘাটে গ্রেফতার তিন

মিলান থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কয়েকটি বাংলা সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিদের জানান, কেন্দ্রীয় শাসক দল বিজেপি অদর্শহীন৷ এও জানান, বনধ ঘিরে কিছু বিক্ষিপ্ত কারণে সম্পত্তি ভাঙচুরের জন্য দোষীদের কড়া শাস্তি দেওয়া হবে৷ আদায় হবে ক্ষতিপূরণ৷ আইন মোতাবেক এই প্রক্রিয়া করা হবে৷

আগেই রাজ্যকে সচল রাখতে সুদূর ইউরোপ সফর থেকে নির্দেশ দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ কোথাও আংশিক প্রভাব পড়লেও গেরুয়া বাহিনীর এদিনের বনধেও খোলা ছিল সরকারি বেসরকারি অফিস৷ মিলান থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘বাংলার মা, মাটি, মানুষ বনধ প্রত্যাখ্যান করেছে৷ তাদের অসংখ্য ধন্যবাদ৷’’ বিজেপির বনধকে পরিকল্পিত চক্রান্ত বলে অভিযোগ করেন মমতা৷ তাঁর কথায়, ‘‘রাজ্যকে পিছিয়ে দিতেই বিরোধীদের এই চক্রান্ত৷’’

শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে দাড়িভিট স্কুলে ছাত্রদের আন্দোলন৷ সেই আন্দোলনে চলে গুলি৷ পুলিশের গুলিতেই নিহত হয় দুজন ছাত্র৷ দাবি বিরোধীদের৷ প্রতিবাদ করে এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘বাইরে থেকে গুণ্ডা এনে দুই ছাত্রকে খুন করেছে ওরা৷ এরাই আবার বনধ ডাকছে৷ মানুষ সব বোঝেন৷’’

আরও পড়ুন: ‘বিজেপি ও তাদের ডাকা বনধ ফ্লপ’

বনধের আগে ও পরে মিলিয়ে মোট তিন দিন কোনও ছুটি নিতে পারবেন না রাজ্য সরকারি কর্মীরা৷ নির্দেশিকা জারি করেছিল নবান্ন৷ এদিন সরকারি দফতরে প্রায় ৯৫ শতাংশ মানুষ উপস্থিত ছিলেন৷ বিষয়টিকে সাফল্য হিসাবে তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী৷

বনধকে কর্মনাশা বলে অভিহিত করেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী৷ তাঁর অভিযোগ, ‘‘রাজ্যে শিল্প আনতে বিদেশে এলেই ওরা গণ্ডগোল করার চেষ্টা করে৷ কিন্তু কাজে গিয়ে মানুষ বুঝিয়ে দিয়েছে বিজেপি ফিনিশ৷’’