স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: ভোট পরবর্তী হিংসা অব্যাহত বাঁকুড়ায়৷ আক্রান্ত বিজেপি কর্মী৷ নিশানায় ফের রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল৷

আরও পড়ুন: প্রতিশ্রুতি রাখতে সিঙ্গুরে ফের টাটাকে ফেরানোর উদ্যোগ শুরু লকেটের

এবার সুশোভন দত্ত নামে এক বিজেপি কর্মীকে তার দোকানের ভীতরে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হাতে কোপ মারার পাশাপাশি তৃণমূলের বিরুদ্ধে দোকান ভাঙচুরের অভিযোগ উঠল। বাঁকুড়ার পাত্রসায়র থানার বেলুট গ্রামের এই ঘটনায় এলাকা জুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। আহত ওই বিজেপি কর্মীকে পাত্রসায়র ব্লক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আক্রান্ত ওই বিজেপি কর্মীর অভিযোগ, প্রতিদিনের মতো এদিন সকালেও বেলুট বাজারে তার মোবাইল দোকান খুলেছিলেন৷ এরপর বেলুট-রসুলপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধান তাপস বাড়ির নেতৃত্বে একটি দুষ্কৃতি দল তার দোকানে ঢুকে অবাধে ভাঙচুরের পাশাপাশি তাকে টাঙ্গি জাতীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। এলাকায় তিনি বিজেপি কর্মী হিসেবে পরিচিত বলেই তৃণমূল তাকে আক্রমণ করেছে বলে সুশোভন দত্তের দাবি।

আরও পড়ুন: মমতার উন্নয়নকে স্তব্ধ করতে তৃণমূল নেতাদের খুনের হুমকি দিচ্ছে বিজেপি: বিস্ফোরক শ্যামল

দলের আক্রান্ত কর্মীর পাশে দাঁড়িয়েছেন বিজেপির পাত্রসায়র মণ্ডল সভাপতি তমাল গুঁই। তিনি বলেন, সুশোভন দত্তের মোবাইল দোকানে প্রধান তাপস বাড়ির নেতৃত্বে তৃণমূল আশ্রিত দূষ্কৃতীরা হামলা চালিয়েছে। তাকে মারধোরের পাশাপাশি কম্পিউটার সহ দোকানের অন্যান্য সামগ্রী ভাঙচুর, নগদ টাকা লুঠ ও বিজেপি করলে বাড়ি থেকে মা, বাবাকে তুলে এনে খুনের হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন দাবী করে তিনি জানান, পাত্রসায়র থানা কোন পদক্ষেপ না নিলে বিষয়টি জেলাপুলিশ সুপার ও জেলাশাসককে জানানো হবে।

আরও পড়ুন: মদন মিত্রের উপস্থিতি সত্ত্বেও টাকা ফেরৎ কেন, প্রশ্ন তুললেন কুণাল ঘোষ

তার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল প্রধান তাপস বাড়ি। তিনি বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে তিনি বা তৃণমূলের কেউ যুক্ত নয়। নতুন বিজেপি ও পুরনো বিজেপি দুই পক্ষের পদ পাওয়া নিয়ে ঝামেলা। একই সঙ্গে এইসব অভিযোগ বিজেপির মিথ্যাচার বলেই তার দাবী।