নয়াদিল্লি: ভোটের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন নিয়ে রাজনৈতিক দলের নেতাদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ রয়েছে। প্রতিশ্রুতি পালন না করা নিয়ে ভোটের প্রার্থীদের বারবার দাঁড় করানো হয় কাঠগড়ায়। এরই আমঝে নজির গড়লেন বিজেপি কর্মী কিমচাঁদ চন্দ্রানী।

আরও পড়ুন- সীমান্ত সুরক্ষায় মমতাকেই সবচেয়ে বেশি টাকা দিলেন মোদী

ভোটের আগে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পালন করতে সাইকেল চালিয়ে পাড়ি দিলেন প্রায় ১২০০ কিলোমিটার পথ। আড়াই সপ্তাহ ধরে সাইকেল চালানোর লক্ষ্য কেবল নিজের প্রতিশ্রুতি রক্ষা। যা তিনি দলেরই অন্য রাজনৈতিক কর্মীদের দিয়েছিলেন।

আর সেই কথা রাখতেই গুজরাতের আমরেলি থেকে দিল্লি পৌঁছেছেন কিমচাঁদ চন্দ্রানী। দিল্লি গিয়েছেন শুধু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দ্বিতীয়বার জয়ের জন্য শুভেচ্ছা জানাতে। শুভেচ্ছা জানাবেন বিজেপি সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকেও। এটাই ছিল তাঁর প্রতিশ্রুতি। যেটা তিনি সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের আগে দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন- পুলিশের চিঠি ফাঁস করে মমতা সরকারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক মুকুল

দীর্ঘ ১৭ দিন সাইকেল চালিয়ে বুধবার দিল্লি পৌঁছেছেন কিমচাঁদ চন্দ্রানী। সাইকেলের দুই চাকায় রয়েছে মোদী এবং অমিত শাহের ছবি। সাইকেলের পিছনে এবং সামনেও রয়েছে দলের এই দুই নেতা তথা দেশের প্রশাসনের দুই শীর্ষব্যক্তির ছবি। এভাবেই দুই চাকার যানটিকে সাজিয়েছিলেন তিনি।

গুজরাতের দক্ষিণে অবস্থিত আমরেলির বাসিন্দা এই বিজেপি কর্মী কিমচাঁদ চন্দ্রানী। এদিন দিল্লি পৌঁছে তিনি বলেন, “সপ্তদশ লোকসভা ভোটের আগে আমি সবাইকে বলেছিলাম যে বিজেপি একার ক্ষমতায় ৩০০ আসন জিতলে, আমি সাইকেল চালিয়ে দিল্লি যাবো। এবং দিল্লি গিয়ে নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহকে শুভেচ্ছা জানাব।”

আরও পড়ুন- BSNL, MTNL-এর জন্য ৭৪ হাজার কোটি টাকা সাহায্য করবে মোদী সরকার

দল জিতেছে। আর সেই জয় ছাপিয়ে গিয়েছে আগের সব রেকর্ড। আর সেই জয়ের সুবাদেই নয়া রেকর্ড গড়েছেন বিজেপি কর্মী কিমচাঁদ। সাইকেল চালিয়ে পার করে ফেলেছেন ১১৮১.৪০ কিলোমিটার পথ। তিনি বলেছেন, “এই সমগ্র পথ শেষ করতে আমার ১৭ দিন সময় লেগেছে। পরিশ্রম অবশ্যই হয়েছে কিন্তু আমি খুশি। আর কোনও ক্লান্তি নেই।” সাফল্য যেন ঢেকে ফেলেছে যাবতীয় ক্লান্তিকে।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করেছেন তাঁর নিজের রাজ্যের বিজেপি কর্মী কিমচাঁদ চন্দ্রানী। কর্মী কিমচাঁদের সাফল্যকে কুর্নিশ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। মোদী তাঁকে বলেছেন, “আপনার অনেক সাহস আছে।” দেশের প্রশাসনিক প্রধানের মুখের এই প্রশংসা শুনে বেজায় খুশি হয়েছেন কিমচাঁদ চন্দ্রানী। আগামিকাল বৃহস্পতিবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করবেন বিজেপির এই নজরকাড়া কর্মী।