স্টাফ রিপোর্টার, নদিয়া: বিজেপি কর্মীর রহস্যমৃত্যু ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল নদিয়ার নবদ্বীপে। নিহতের নাম কৃষ্ণ দেবনাথ (৩১)। বিজেপির অভিযোগ, ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দেওয়ার জন্যই তাদের সমর্থককে পিটিয়ে হত্যা করেছে তৃণমূল।প্রতিবাদে শনিবার সকালে কৃষ্ণ দেবনাথের মৃতদেহ নিয়ে নবদ্বীপ রোড অবরোধ করে বিজেপি৷ অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। সেইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করলেন তিনি৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার রাতে স্বরূপগঞ্জের স্থানীয় ক্লাবের সামনে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছিল কৃষ্ণ দেবনাথকে। সেখান থেকে উদ্ধার করে স্থানীয়রাই তাঁকে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখান থেকে এনআরএস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বৃহস্পতিবারই এনআরএস হাসপাতালে মৃত্যু হয় যুবকের। বিজেপির অভিযোগ জয় শ্রীরাম বলার কারণেই তাঁকে পিটিয়ে হত্যা করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। মৃত যুবকের পরিবার ৩ জনের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে।

বিজেপি অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল৷ তাদের পাল্টা দাবি মৃত যুবক ইভটিজিং করায় স্থানীয়রাই তাকে মারধর করেছিল। তাতেই মৃত্যু হয় যুবকের।

এদিন দেহ নিয়ে থানার সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন বিজেপি কর্মীরা। মুকুল রায় গিয়ে থানার আইসির সঙ্গে কথা বললে বিক্ষোভ থামে। পরে মুকুল রায় বলেন, ‘২৩ মে-র পর থেকে আজ পর্যন্ত মোট ১৯ জন বিজেপি কর্মীকে হত্যা করা হয়েছে। রাজ্যে অরাজকতা চালাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উনি প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে পরে বৈঠক করবেন, আগে পদত্যাগ করুন।’