শ্রীনগর : ফের বিজেপি নেতার ওপর প্রকাশ্যে গুলি। এবার গুলি চলল জম্মু কাশ্মীরের বুদগাম জেলার বিজেপি কর্মীর ওপর। বেশ কয়েকজন জঙ্গি সামনে থেকে গুলি করে ওই বিজেপি কর্মীকে। আবদুল হামিদ নাজরকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নাজর মধ্য কাশ্মীরের বুদগামের মহিয়েন্দপোরা এলাকার বাসিন্দা। দ্রুত স্থানীয় হাসপাতালে তাঁকে ভর্তি করা হয়। তিনি বুদগাম বিজেপি ওবিসি মোর্চার প্রেসিডেন্ট। এর আগেও জঙ্গি হামলা হয় বিজেপির নেতার ওপরে। বিজেপি সরপঞ্চের উপর হামলা চালায় জঙ্গিরা। দক্ষিণ কাশ্মীরের কুলগামে ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, আরিফ আহমেদ নামে ওই সরপঞ্চকে লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে জঙ্গিরা। কুলগামের আখরানে এই ঘটনা ঘটেছে। কাশ্মীরের ইন্সপেক্টর জেনারেল বিজয় কুমার বলেন, জঙ্গিদের গুলিতে আহত আহমেদ। তাঁকে কাজিগন্ডের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাঁর ঘাড়ে ভয়াবহ আঘাত লেগেছে বলে জানা গিয়েছে।

বিজেপির মুখপাত্র আলতাফ ঠাকুর জানিয়েছেন, বাড়ির ভিতরেই জঙ্গিরা তাঁকে লক্ষ্য করে হামলা চালায়। এরপর তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। গত এক মাসে কাশ্মীরে বিজেপি নেতাকে লক্ষ্য করে এভাবে তৃতীয়বার হামলা চালানো হল। গত মাসে বিজেপির জেলা প্রেসিডেন্ট ওয়সিম বারি, তাঁর বাবা ও ভাইকে হত্যা করা হয়। খুব কাছ থেকে হামলা করা হয় তাঁদের উপর।

এদিকে পুলিশ সূত্রে খবর, গত কয়েকদিনে বারবার জঙ্গিদের টার্গেট হচ্ছে কাশ্মীরের বিজেপি নেতারা। বারবার এই ঘটনায় ব্যাপক আতঙ্ক ছড়িয়েছে উপত্যকায়। এক সংবাদমাধ্যম জানাচ্ছে, বিজেপি নেতাদের টার্গেট করার ঘটনায় রীতিমত আতঙ্কিত উপত্যকায় বিজেপি নেতারা।

এতটাই আতঙ্কিত যে অনেকেই জম্মু-কাশ্মীরে বিজেপি ছাড়তে চাইছে বলে দাবি ওই সংবাদমাধ্যমের। কেউ কেউ আবার বিশেষ নিরাত্তার দাবি জানিয়েছে। বারবার এই ঘটনায় উদ্বিগ্ন বিজেপি নেতৃত্বও। এই বিষয়ে স্থানীয় পুলিশ-প্রশাসনের সঙ্গে একপ্রস্ত নিরাপত্তা দেওয়ার ব্যাপারে আলোচনাও শুরু হয়েছে বলে খবর।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।