ফাইল চিত্র

জলপাইগুড়ি: দলীয় কর্মীর উপর দুষ্কৃতী হামলার ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখাল বিজেপি৷ বিজেপির জলপাইগুড়ি সদর মণ্ডল দু’নম্বর কমিটি থেকে কোতোয়ালি থানা পর্যন্ত বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মীরা৷ এরপর স্মারকলিপি জমা দেন থানায়৷ দ্রুত দোষীদের গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়েছে দলের পক্ষ থেকে।

আরও পড়ুন: মমতার যে পঞ্চবাণে কুপোকাত বিরোধী শিবির!

গত ১৭ জুলাই বিজেপি নেতা মদন দাসের উপর হামলা চালানো হয়৷ অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত ভানু দাস-সহ বেশ কয়েকজন এই হামলার ঘটনা ঘটায়৷ মারধরে গুরুতর জখম মদন দাস বর্তমানে শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি রয়েছেন। কিন্তু ভানু দাসের অভিযোগের ভিত্তিতে কোতোয়ালি পুলিশ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে খুনের মামলা রুজু করলেও অভিযুক্তরা এখনও অধরা৷

যদিও যার বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল সেই ভানু দাস এই ঘটনার পর মদন দাস ও তাঁর স্ত্রী সবিতা দাসের বিরুদ্ধে পাল্টা মারধরের মামলা রুজু করেছেন। তবে বিজেপির তরফে প্রশ্ন নার্সিংহোমে চিকিৎসাধীন মদন দাস৷ তার স্ত্রীও সেখানে। তাহলে কীভাবে তাঁরা হামলার ঘটনায় যুক্ত হলেন! মিথ্যা অভিযোগ করা হয়েছে বলে দাবি আন্দোলনকারীদের। এদিনের কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি যুব মোর্চার জেলা সভাপতি শ্যাম প্রসাদ, বিজেপি নেতা সুখদেব নন্দী, তপন রায়-সহ অন্যরা।

আরও পড়ুন: একুশের ভিড়ে লক্ষীলাভ সোনাগাছির

জলপাইগুড়ি টাউন ব্লকের বিজেপি সাধারণ সম্পাদক পলেন ঘোষ বলেন, আমাদের কর্মীদের উপর আক্রমণ করা হয়৷ বেশ কয়েকজন আহত। থানায় অভিযোগ করা হয়েছে৷ অথচ অভিযুক্তরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে। পুলিশ কেন গ্রেফতার করছে না বোঝা যাচ্ছে না৷ দোষীদের দ্রুত গ্রেফতার না করা হলে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুমকিও দেওয়া হয়েছে৷ এ বিষয়ে কোতোয়ালি থানার আইসি বিশ্বাশ্রয় সরকার জানান, ঘটনায় দুই পক্ষের অভিযোগ জমা পড়েছে। তদন্ত চলছে।