নয়াদিল্লি: পরিসংখ্যান বলছে গত দুদিনে ভারতে টপ ট্রেন্ডিং শব্দ চৌকিদার৷ ট্যুইটারে যার সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৫ লক্ষের ঘর৷ এদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ার যুদ্ধ জয় করে বেশ আত্মবিশ্বাসী গেরুয়া শিবির৷ কারণ তাঁদের ব্যবহার করা চৌকিদার শব্দটি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় হিট৷ প্রায় পনেরো লক্ষ ফলোয়ার ট্যুইটতে কমেন্ট করেছেন বা শেয়ার করেছেন৷

লোকসভা নির্বাচনের আর একমাসও বাকি নেই৷ তার আগে চৌকিদার শব্দে সোশ্যাল মিডিয়া জয়, বিজেপির পালে বেশ কিছুটা হাওয়া দিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে৷

ট্যুইটারে এখন ট্রেন্ডিং #MainBhiChowkidar, #ChowkidarPhirSe-এর মতো শব্দবন্ধ৷ অনেকেই নিজের নামের সঙ্গে চৌকিদার শব্দ জুড়ে নিচ্ছেন৷ ফলে দিন দিন বাড়ছে এর গ্রহণযোগ্যতা৷ শনিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একটি ট্যুইট করে বলেছিলেন প্রত্যেক ভারতীয়কে চৌকিদার হতে হবে৷ দুর্নীতির বিরুদ্ধে, অসামাজিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে ও যাবতীয় দূষণের বিরুদ্ধে৷ সেই শ্লোগান কাজ করেছে বলেই মনে করা হচ্ছে৷

২০১৪ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর দেশের চৌকিদার হিসেবে কাজ করেছেন প্রধানমন্ত্রী, এমনই দাবি তাঁর৷ সেই দাবি নিয়েই ২০১৯ সালে নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চাইছেন মোদী৷ কংগ্রেসের যাবতীয় ট্রোল উপেক্ষা করেই বিজেপি ভরসা রাখছে চৌকিদার শব্দটির ওপর৷ রাফায়েল চুক্তিতে দোষী সাব্যস্ত করে মোদীকে কোণঠাসা করার চেষ্টা করে আসছে কংগ্রেস৷ এই প্রসঙ্গে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর #ChowkidarChorHai সেভাবে চাপ ফেলতে পারেনি সোশ্যাল মিডিয়ায়৷

দেখা গিয়েছে #MainBhiChowkidar প্রায় ১৫ লক্ষ বার ব্যবহার হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়, বিভিন্ন ভাবে৷ #ChowkidarPhirSe ব্যবহার হয়েছে ৩ লক্ষ বার৷ সেই তুলনায় তালিকার অনেকটাই নিচে #ChowkidarChorHai৷ ১ লক্ষ ৬৩ হাজার বার ব্যবহার হয়েছে এই শব্দ৷