স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: তৃণমূল প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে অনেক আগেই। জোট নিয়ে সমস্যা থাকলেও প্রার্থী তালিকা দিয়েছে বাম এবং কংগ্রেসও। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ময়দানে নামেনি বিজেপি।

তবে বুধবার রাতেই সেই তালিকা প্রকাশ হবে বলে সূত্রের খবর। রাত ১১ থেকে ১২ টার মধ্যে সামনে আসবে প্রার্থী তালিকা।

বিজেপির তালিকার জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন অনেকেই। তারা তালিকায় কী চমক দেবে সেটাই দেখার।

আরও পড়ুন: বিজেপির প্রার্থী হওয়া নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিলেন শ্রাবন্তী

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে গত পাঁচ বছর ধরে একটু একটু করে হালে পানি পেয়েছে বঙ্গ বিজেপি। মুকুল রায়ের মত বর্ষীয়ান নেতাকে দলে এনে চমক দিয়েছে গেরুয়া শিবির। রাজ্যে প্রধান বিরোধী হিসেবে উঠে এসেছে বিজেপির নাম। তাই ২০১৯ লোকসভা নির্বাচন বিজেপির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

রাজনৈতিক মহলের মতে, বিজেপির জন্য পশ্চিমবঙ্গে একটা সেমিফাইনাল হতে চলেছে এই লোকসভা নির্বাচন। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তাদের জায়গা কেমন হবে, সেটাও অনেকটা স্পষ্ট হয়ে যাবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এসেছেন অর্জুন সিং। তাই তাঁর প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। এছাড়াও ভারতী ঘোষকে প্রার্থী করা হতে পারে বলেও মনে করা হচ্ছে। প্রার্থী হতে পারেন খগেন মুর্মু।

ফাইল ছবি

শোনা যাচ্ছে, তৃণমূলের তারকা প্রার্থী মিমি-নুসরতের পালটা হিসাবে একাধিক তারকার নামও। যেমন উঠে আসছে ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পালের নাম, অভিনেত্রী শ্রাবন্তীর নামও। বিজেপির তরফে ইতিমধ্যে নাকি শ্রাবন্তী, অগ্নিমিত্রাকে ভোটে দাঁড়ানোর জন্যে প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছিল বলে সূত্র খবর।

আরও পড়ুন: একসময় তাপস-মুনমুনের অ্যালবামে গান গেয়েছিলাম আমি: বাবুল

যদিও সম্প্রতি নিজের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে কার্যত ক্ষোভও উগরে দিয়েছেন অভিনেত্রী। ট্যুইটে শ্রাবন্তীর বক্তব্য, ”আমার সমস্ত বন্ধু এবং ভক্তদের উদ্দেশ্যে বলছি… দিনকয়েক ধরেই শুনছি আমি নাকি কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত এবং তাঁদের হয়ে লোকসভা ভোটে দাঁড়াতে চলেছি! আমি সাফ জানাতে চাই যে, আমি কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নই। আমার কাজ মানুষের মনোরঞ্জন করা, আর আমি তাই করছি।”