প্রতীকী ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীকোন্দলকে কাজে লাগিয়ে ভোটের ময়দানে বাজিমাত করতে আসরে নেমে পড়ল বিজেপি৷ তারা জানিয়ে দিল, বিক্ষুব্ধ তৃণমূলীদের পদ্ম-প্রতীক দেওয়া হবে৷ শুক্রবার কোচবিহারে এমনই ঘোষণা করেছেন দলের জেলা সভাপতি নিখিলরঞ্জন দে৷

আরও পড়ুন: মোটা টাকার বিনিময়ে পঞ্চায়েতের টিকিট বিক্রিতে অভিযুক্ত মমতার দল

একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, সব জায়গায় অবশ্য বিক্ষুব্ধ তৃণমূলীদের সাদরে আমন্ত্রণ জানানো হবে৷ তবে যেখানে বিজেপির প্রার্থী নেই, সেখানেই বিক্ষুব্ধ তৃণমূলীদের পদ্ম-প্রতীকে ভোটে লড়ার সুযোগ দেওয়া হবে৷

আরও পড়ুন: পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রকে মারধরে অভিযুক্ত গৃহশিক্ষিকা

এদিন তিনি জানান, যদি তৃণমূল কংগ্রেসের বিক্ষুদ্ধরা তাঁদের কাছে আসেন তবে তাঁরা প্রতীক দেবেন। ইতিমধ্যে বেশ কিছু বিক্ষুব্ধ তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ করেছে দাবি করেছেন বিজেপি। যদিও বিজেপির দাবি উড়িয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষের দাবি, কোথাও কোনও তৃণমূল কংগ্রেস বিজেপিতে যাচ্ছে না, যারা প্রতীক পাবেন না তাঁরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেবেন।

এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে কোচবিহার জেলায় শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যতম মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে দলের বিক্ষুব্ধরা। অনেক তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী, দলের টিকিট না পেয়ে নির্দল হিসেবে বা গোঁজ প্রার্থী হিসেবে দাড়িয়ে পড়েছেন। এই পরিস্থিতিতে বারবার এই সব প্রার্থীদের মনোনয়ন প্রত্যাহারের জন্য আবেদন করে যাচ্ছে জেলা নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন: সন্তানদের কাছে ব্রাত্য বৃদ্ধাশ্রমের আবাসিকরা প্রয়োগ করবেন ভোটাধিকারও

এই পরিস্থিতি কাজে লাগাতে চাইছে বিজেপি, ইতিমধ্যেই যেখানে বামেদের প্রার্থী থাকবে না সেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের বিক্ষুদ্ধদের ভোট দেওয়ার জন্য সিপিএম ঘোষণা করেছে। এবার সেই পথে হাটছে বিজেপিও।

দলের কোচবিহার জেলা সভাপতি নিখিলরঞ্জন দে বলেন, অনেক তৃণমূল কংগ্রেসের বিক্ষুব্ধ প্রার্থী তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন, তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ‘‘আমাদের লক্ষ্য তৃণমূলকে পরাস্ত করা, তাই যেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের সন্ত্রাসের জেরে বিজেপি প্রার্থী দিতে পারেনি, সেখানে বিক্ষুদ্ধ তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীদের প্রয়োজনে প্রতীক দেবে বিজেপি।’’

আরও পড়ুন: পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্রকে মারধরে অভিযুক্ত গৃহশিক্ষিকা

যদিও বিজেপি এই দাবি আষাঢ়ে গল্প বলে দাবি করেছেন, উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ । তিনি বলেন, ‘‘যারা দলের প্রার্থীর বাইরে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন তাঁরা সকলেই তা প্রত্যাহার করে নেবেন, কেউ বিজেপির পাতা ফাঁদে পা দেবে না।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘বিজেপির প্রার্থীরাই তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে।’’