নয়াদিল্লি: বিজেপিই ফের দখল করবে ভারতের শাসন ক্ষমতা। ছাড়িয়ে যাবে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের রেকর্ড। দাবি করলেন বিজেপি নেতা তথা কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল।

দিল্লিতে শুরু হয়েছে বিজেপির ন্যাশনাল কাউন্সিলের সভা। সেই সভায় সমগ্র দেশ থেকে প্রায় ১২ হাজার নেতাকর্মী হাজির হয়েছেন। সেখানেই তৈরি হচ্ছে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের নীল নকশা। যার উপরে ভিত্তি করেই ফের লোকসভার লড়াইয়ের জন্য ঝাপাবেন মোদী-অমিত শাহ জুটি।

সেই সভার শেষে বেশ আত্মবিশ্বাসী দেখা গেল রেলমন্ত্রী পীযুষ গোয়েলকে। স্থির বিশ্বাসে জানিয়ে দিলেন যে ‘আমরা আসছিই’। তাঁর কথায়, “ন্যাশনাল কাউন্সিলের সভা খুবই ভালো হয়েছে। এর প্রভাবও বেশ ফলপ্রসু হবে। আমরা আবারও দেশের ক্ষমতা দখল করব এবং একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়েই সরকার গড়ব দিল্লিতে।” পাশাপশি তিনি আরও বলেছেন, “লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি ৩০০টিরও বেশী আসনে জিতবে।”

কিন্তু কী করে তা সম্ভব? এমনিতেই ২০১৪ সালের মোদী ঝড় এখন অনেকটাই ফিকে। দলের একাধিক নেতা মোদীর বিরুদ্ধে সরব হতে শুরু করেছেন। তার মধ্যে এনডিএ শরিকদের মধ্যেও দেখা গিয়েছে কোন্দল। সঙ্গ ছেড়েছে শিবসেনার মতো শরিক।

এই বিষয়টি সম্পর্কেও বিশদে ব্যাখ্যা করেছেন মোদীর মন্ত্রী পীযুষ গোয়েল। তাঁর কথায়, “আমাদের দেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রের মানুষের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রবল জনপ্রিয়তা আছে। বিশেষ করে যুব সমাজ মোদীকে ফের প্রধানমন্ত্রী রূপে দেখতে আগ্রহী।” এই জনপ্রিয়তার উপরে ভিত্তি করেই মোদী ফের প্রধানমন্ত্রীর গদিতে বসবেন বলে দাবি করেছেন রেলমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল।