স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: তৃণমূল কংগ্রেস যে বুথে হারবে, সেই বুথেই গণনা বানচাল করার চেষ্টা করবে – নিশ্চিত বিজেপি৷ সেই কারণে গণনা কেন্দ্রে ১০০ শতাংশ কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী দাবি করেছে গেরুয়া শিবির৷ রাজ্যের পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবের সঙ্গে বৈঠক করে অনুরোধ করেছে বিজেপি৷

রাজ্য বিজেপির সহসভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদার বুধবার বলেন, ‘‘যেখানে ইভিএম রাখা আছে, সেখানে শ’য়ে শ’য়ে তৃণমূল কর্মীরা বসে আছেন৷ কারণ নেত্রী বলেছেন, ইভিএম পাহারা দিতে হবে৷ ইভিএম রক্ষণাবেক্ষণ করার দায়িত্ব ভারতীয় নির্বাচন কমিশনের৷ কেন্দ্রীয় বাহিনী রয়েছে৷ দরকার হলে রাজ্য বাহিনীরও সাহায্য নেওয়া হতে পারে৷ কিন্তু, ইভিএম রক্ষা করতে, তৃণমূল বাহিনীর সাহায্য নিতে হবে কেন? রাজ্যের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী কী বলতে চাইছেন? তৃণমূল বাহিনীর হাতে সিকিউরিটি ছেড়ে দিতে চাইছেন? আমরা বুঝতে পারছি তার ইঙ্গিত কী? কিন্তু আমরা অশনী সংকেত দেখছি৷’’

তিনি বলেন, ‘‘৮৪ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী গণনা কেন্দ্রে থাকবে৷ বাইরের কী হবে? গেটে কারা কারা দাঁড়াবে? আরও ২০০ কোম্পানি বাহিনী গণনার কাজে এসেছেন আপনারা জানেন৷ গণনা কেন্দ্রীর আসেপাশে তিনটি স্তর থাকবে৷ বাইরের বেষ্ঠনীতে রাজ্য পুলিশের থাকার কথা৷ তাদের উপর আমাদেরও ভরসা নেই৷ সাধারণ মানুষেরও ভরসা নেই৷ কোনও তৃণমূলের নেতা যদি জোর করে নিরাপত্তা বেষ্ঠনী ভেদ করে গণনা কেন্দ্র ঢুকতে চায় তাদের আটকাতে পারবে না রাজ্য পুলিশ৷ সেই করণেই ১০০ শতাংশ কেন্দ্রীয় বাহিনী ইভিএমের নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত করা উচিত৷ তৃণমূল গণনাকেন্দ্রে ঢুকে গণনা ভণ্ডুল করার চেষ্টা করবেই৷’’

সারা দেশেই বিরোধীরা ইতিমধ্যেই ইভিএম কারচুপির অভিযোগ তুলেছেন৷ ভিভিপ্যাট গণনা আগে হোক – দাবি তুলেছে বিরোধীরা৷ তবে সেই দাবি গ্রাহ্য হয়নি৷ জয়প্রকাশের অভিযোগ, তৃণমূল আগে থেকেই গণনায় গণ্ডোগোল পাকানোর ষড়যন্ত্র করে রেখেছে৷