স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: একটি বেসরকারি স্পঞ্জ আয়রন কারখানা বন্ধ নিয়ে বাঁকুড়ায় বিজেপি-তৃণমূল তরজা অব্যাহত। বড়জোড়া শিল্প তালুকের ঘুটগেড়িয়ার ওই স্পঞ্জ আয়রন কারখানায় সাড়ে তিনশোরও বেশি কর্মচারী বেতন পাননি বলে অভিযোগ। এমনকি সম্প্রতি কারখানার গেটে নোটিশ দিয়ে কর্মচারীদের ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। সংশ্লিষ্ট কর্মচারীরা কারখানার ভিতরে ঢুকতে গেলে নিরাপত্তারক্ষীরা তাঁদের বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় দশ বছর আগে ঘুটগেড়িয়ার ওই এলাকায় একটি বেসরকারি স্পঞ্জ কারখানা তৈরি করা হয়েছিল। যার ফলে স্থানীয় বেশ কিছু যুবকের কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছিল। কিন্তু বিগত সাত মাস ধরে ওই স্পঞ্জ কারখানার প্রায় সাড়ে তিনশো শ্রমিকদের কোনও রকম বেতন না দিয়ে কারখানা বন্ধ রাখে কর্তৃপক্ষ। যারফলে সমস্যায় পড়েছেন ওই কারখানার শ্রমিকেরা। শুক্রবার সকালে কারখানার শ্রমিকদের বকেয়া মিটিয়ে অবিলম্বে কারখানা চালু করার দাবি জানিয়ে, কারখানার গেটের বাইরে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি সমর্থক শ্রমিক সংগঠন বিজেএমটিইউ সদস্যরা।

শুক্রবার বিক্ষোভ সমাবেশে নেতৃত্ব দিয়ে বিজেএমটিইউ নেতা গোবিন্দ ঘোষের দাবি, স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের একাংশের সঙ্গে মালিক কর্তৃপক্ষের যোগসাজশে কারখানা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। কারখানা কর্তৃপক্ষ তাদের সঙ্গে কোনও আলোচনায় আসতে চাইছেন না বলেও তিনি দাবি করেন। ওই কারখানার শ্রমিক বরেণ ঘোষও কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শাসক দলের নেতাদের যোগসাজশের অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বলেন, গত আট বছর ধরে এই কারখানায় কাজ করছি। সাত মাস হল আমাদের বেতন বন্ধ। মালিক কর্তৃপক্ষ তাঁদের সঙ্গে কোনও ধরনের আলোচনায় বসতে চাইছেন না বলে জানান ওই শ্রমিক। প্রয়োজনে তারা বকেয়া বেতন ও কারখানা খোলার দাবিতে বৃহত্তর আন্দোলনে নামবেন বলেও জানিয়েছেন।

বিজেপি শ্রমিক সংগঠনের তোলা অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। দলের বড়জোড়া ব্লক সভাপতি অলোক মুখোপাধ্যায় বিজেপি ‘হুজুগে চলছে’ দাবি করে বলেন, ‘কার যোগসাজশ রয়েছে ওনারা তা প্রকাশ্যে প্রমাণ করুন’। তৃণমূল সব সময়ে শ্রমিকদের পাশে রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, শ্রমিকরা প্রায় প্রত্যেকেই এই এলাকার বাসিন্দা। তারা তাদের নায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত হোক এটা তারা কোনও মতেই হতে দেবেন না বলে তিনি জানিয়েছেন।