মালদহ: বিজেপির প্রধানকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাল দলেরই কর্মী সমর্থকরা৷ ঘটনাটি মালদহের ব্লকের মুচিয়া গ্রামপঞ্চায়েতে৷ দুই ঘণ্টা ধরে প্রধান শুভলক্ষী গাইনকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখায় তারা।

প্রধানের বিরুদ্ধে তাদের অভিযোগ, পঞ্চায়েতের সদস্যদের কোন তথ্য দিচ্ছেন না। ১০০দিনের কাজ থেকে জন পরিসেবা সবই সদস্যদের অন্ধকারে রেখে করছেন তিনি। তাই প্রধানের বিরুদ্ধে নিজের দলের সদস্যরাই পথে নেমেছেন। গ্রাম পঞ্চায়েতে বিজেপি দলের সদস্যরাই বিজেপির প্রধানের বিরুদ্ধে আন্দোলনে সামিল।

যদিও প্রধানের দাবি, পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর বিগত বোর্ডের কাজই অসমাপ্ত আছে। সেই কাজই এখন চলছে। নতুন কোন কাজ বা কাজের পরিকল্পনা এখন হয়নি। ফলে অভিযোগ সবই মিথ্যা। বিষয়টি সদস্যদের জানানো আছে। আর যিনি বিক্ষোভ নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি পঞ্চায়েত সদস্যের স্বামী।

পঞ্চায়েত সদস্যের স্বামীর অভিযোগ, মোট চারশো জব কার্ড আছে৷ তার মধ্যে ৪০ টি জব কার্ডের কাজ দেওয়া হয়েছে৷ প্রথমবার যে ৪০ টি জব কার্ডে কাজ দেওয়া হয়েছে দ্বিতীয়বার ফের তাদেরই কাজ দেওয়া হয়েছে৷ তাঁর দাবি ওয়ার্ডের চারশো জব কার্ডই চালু হবে৷ একটা জব কার্ডে দ্বিতীয়বার কাজ না দিয়ে বাকিদের কাজের সুযোগ করে দেওয়া হোক৷ তাহলে গোটা বছর কাজ হবে৷ কিন্তু পঞ্চায়েত প্রধান তার কথা না শুনে একই জব কার্ডের লোকদের বার বার কাজ করাছে৷ বাকি সাধারণ মানুষ তাকে এই কাজের বিষয়ে বলায় তিনি আন্দোলনের পথ বেছে নিয়েছেন বলে জানান৷

প্রসঙ্গত, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে ১৬টি আসনের মধ্যে বিজেপি ১০, তৃণমূল ৫ ও কংগ্রেস ১টি আসন পায়। সংখ্যাগরিষ্ঠতা হয়ে ক্ষমতা দখল করে বিজেপি। কয়েক মাসের মধ্যেই বিজেপির অন্দরে কোন্দলের এমন ঘটনায় অস্বস্তিতে বিজেপির জেলা নেতৃত্ব।