কলকাতা: কেন্দ্রীয় পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ‘আক্রমণ ও হেনস্থা’ নিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টির রাজ্য নেতৃত্বের তরফে বিরোধী রাজনৈতিক দল পাশাপাশি ছাত্রছাত্রীদের জন্য উড়ে এসেছে একাধিক মন্তব্য। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে শুক্রবার মিছিল বের করে রাজ্য বিজেপি। এদিন এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন রাজ্য বিজেপির সহ-সভাপতি জয় প্রকাশ মজুমদার।

এদিনের প্রতিবাদ মিছিল থেকে তিনি জানিয়েছেন, “বৃহস্পতিবার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ঘটনা জঘন্য এবং নিন্দনীয়। স্বাধীন ভারতের কোথাও এইরকম কোন ঘটনা ঘটেনি। একজন নাম করা বিজেপি নেতা। যিনি নকশাল ও এসএফআইয়ের ছাত্রছাত্রীদের দ্বারা নিগৃহীত হয়েছেন।”

তিনি দাবি করেছেন, এই অঞ্চলে নকশালরা বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরকে তাঁদের সুরক্ষিত ঘাঁটি বানিয়েছে। পাশাপাশি জয় প্রকাশ মজুমদার আরও বলেন, “এই রাজ্যে কোন আইন শৃঙ্খলা নেই। অনুষ্ঠানটি খুব সাধারণ একটি আলোচনা সভা ছিল। যাইহোক সেখানেই তিনি কিছু ছাত্রছাত্রী তাঁকে নিয়ে হাতাহাতি করে এবং হেনস্থা করে। এই ঘটনা বিশ্ববিদ্যালয় কোন পদক্ষেপ নেননি। এই ঘটনার পিছনে সিপিআইএম যুক্ত।”

বিজেপির এই নেতার বিশ্বাস যে, তাঁর দলই একমাত্র যারা এইরকম ঘটনার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয়কে ‘দেশদ্রোহী’ মুক্ত করতে পারে। এদিন প্রায় একশর বেশি বিজেপি কর্মী এই মিছিলে সামিল হয়েছিলেন। বামেদের এবং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে কটাক্ষ করে উচ্চস্বরে স্লোগান দিতে থাকে।

বৃহস্পতিবার এবিভিপির একটি অনুষ্ঠানে যোগদান করতে এসেই বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় ‘হেনস্থা’ হয়েছেন বলেই জানা গিয়েছে। প্রায় ছয়’ঘন্টা তিনি ক্যাম্পাসে আটকে থাকেন বলেই খবর পাওয়া যায়। পরিস্থিতির কোন পরিবর্তন না দেখে খোদ রাজ্যপাল আসেন এবং তাঁর নিজের গাড়িতে করে বিজেপি সাংসদকে রীতিমত উদ্ধার করে নিয়ে যান। এই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ালে আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখতে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।