চণ্ডীগড়: রবিবার হরিয়ানাতে নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করে বিজেপি। সেখানেই বেশ কয়েকটি বড়সড় প্রতিশ্রুতি দেয় হরিয়ানা বিজেপি। কৃষক, স্থানীয় মানুষ এবং তপশিলি জাতি ও উপজাতিদের উন্নয়নের কথা ভেবে এই ইস্তেহারে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয় বিজেপির তরফে। পাশাপাশি সরকারি চাকুরির ক্ষেত্রে ৯৫ শতাংশ আসনে স্থানীয়রা অগ্রাধিকার পাবে, অর্থাৎ ৯৫ শতাংশ আসন সংরক্ষিত থাকবে স্থানীয়দের জন্য, বিজেপির নির্বাচনী ইস্তেহারে এমনটাই প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

চাকরির ক্ষেত্রে এই বিশাল প্রতিশ্রুতির পাশাপাশি কৃষকদেরকেও বড় আশা দেওয়া হয়েছে বিজেপির নির্বাচনী ইস্তেহারে। জানানো হয়েছে দ্বিতীয় বারের জন্য বিজেপি সরকার ক্ষমতায় এলে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত সুদ দেওয়া হবে একেবারে বিনা ঋণে। শুধুমাত্র যে কৃষকরা এই সুবিধা পাবেন তা নয়, তপশিলি ও উপজাতি মানুষরাও ৩ লাখ টাকা ঋণ নিলে কোনও সুদ দিতে হবে না।

‘মেরা স্বপ্ন কা হরিয়ানা’ শীর্ষক বিজেপির এই নির্বাচনী ইস্তেহারে রয়েছে ১৫ টি অধ্যায় এবং ২৪৮ টি পয়েন্ট। হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টর জানিয়েছেন, এটি ‘রাম রাজ্যে’ এর নিয়ম মেনে তৈরি। এর পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, তাঁর সরকার প্রতিশ্রুতিমতো দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে।

বিজেপির কার্যকারী প্রেসিডেন্ট জগৎ প্রকাশ নাড্ডা জানিয়েছেন, এই ইস্তেহার বাস্তবিক ও ব্যবহারিক। তিনি জানিয়েছেন, এই নির্বাচনী ইস্তেহার হরিয়ানার মানুষদের কাছে আমাদের প্রতিশ্রুতি। শেষ বারের মত আমারা এবারেও যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছি তার থেকেও বেশি পরিষেবা দেব।

এই ইস্তেহার অনুযায়ী বিজেপির তরফে ৩০০০ টাকা বার্ধক্য ভাতা দেওয়ার কথা জানানো হয়েছে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য ক্ষেত্রেও বিশেষ জোর দেওয়ার কথা এই ইস্তেহারে প্রকাশ পেয়েছে। একই সঙ্গে এই পত্রে জাননো হয়েছে দ্বিতীয় বার ক্ষমতায় এলে হরিয়ানা জুড়ে ২০০০ স্বাস্থ্যকেন্দ্র নির্মাণ হবে। জার ফলে বহু নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষ উপকৃত হবেন। এছাড়া রাজ্যে আবার ক্ষমতায় এলে ১০০০ ‘খেল নার্সারি’ তৈরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছে হরিয়ানা বিজেপি।