স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: তাঁর বিরুদ্ধে রেল বাংলোয় পার্টি অফিস খোলা নিয়ে সরব হয়েছে খড়গপুরের তৃণমূল নেতৃত্ব৷ উঠেছে দখলদারির অভিযোগও৷ এমন পরিস্থিতিতে সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে তৃণমূলের চালেই তাদের ঘায়েল করার ইঙ্গিত দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ খড়গপুরের বিধায়কের স্পষ্ট বার্তা এলাকা জুড়ে তৃণমূল কংগ্রেসের গজিয়ে ওঠা ‘বেআইনি’ পার্টি অফিস ভাঙা না হলে আন্দোলনের রাস্তায় নামবে বিজেপি৷

গত ফেব্রুয়ারি মাসে খড়গপুরে নিজের অফিস খুলেছিলেন স্থানীয় বিধায়ক দিলীপ ঘোষ৷ বাংলোর ঠিকানাতেই ছাপিয়েছেন নিজের কার্ড৷ বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে সেখানেই তাঁর সঙ্গে দেখা করতে আসতেন এলাকার মানুষজন৷ কিন্তু সম্প্রতি স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় রেলের জমিতে দলীয় অফিস খুলেছেন বিধায়ক৷ অভিযোগ, এমএলএ অফিসে আরএসএস কর্মীরা এসে আশ্রয় নিচ্ছে৷ ডিআরএম-কে এই মর্মে স্মারক লিপিও দেওয়া হয়েছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে৷ প্রশ্ন করা হয়েছে, রেল কর্মীদের জন্য তৈরি বাংলো কেমন ভাবে ব্যবহার করতে পারেন বিজেপি নেতা?

স্থানীয় তৃণমূল প্রশ্নকে আমল না দিয়ে তাদের একহাত নিয়েছেন খড়গপুরের বিধায়ক দিলীপ ঘোষ৷ তিনি জানান,‘কংগ্রেস জামানায় রেলকে চুষে খেয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ নিজেরা বেআইনি ভাবে প্রচুর পার্টি অফিস করেছে৷ তারা আবার এখন অভিযোগ করছে৷’ ডিএময়ের কাছে তৃণমূলের করা অভিযোগের প্রশ্নে দিলীপ ঘোষের সোজাসাপটা উত্তর, ‘ডিএম আমাকে নিজে অনুমতি দিয়েছেন৷’ তবে কড়া ভাষায় জানিয়েছেন, বাড়াবাড়ি করলে খড়গপুরে রেলের জমিতে তৈরি করা তৃণমূল কংগ্রেসর বেআইনি পার্টি অফিসে ভাঙার দাবিতে আন্দোলনে নামবে বিজেপি৷