তৃণমূলে যোগ বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের দাদা সুশান্তের
তৃণমূলে যোগ বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের দাদা সুশান্তের

প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর: ফের শক্তি বৃদ্ধি রাজ্যের শাসক দলের। এবার তৃণমূলে যোগদান করলেন হুগলির বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের দাদা সুশান্ত চট্টোপাধ্যায়।

উত্তর ২৪ পরগণার কামারহাটি পুরসভার দক্ষিণেশ্বর মন্দির প্রাঙ্গণের কাছে কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি বিল, ডুবন্ত অর্থনীতির বিরুদ্ধে তৃণমূলের বিক্ষোভ প্রদর্শন মঞ্চে আসেন সুশান্তবাবু। সেখানেই দলের পতাকা গ্রহন করে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়ের দাদা সুশান্ত।

এ দিন তিনি ছাড়াও তৃণমূলে যোগদান করেন বিভিন্ন দল থেকে আসা প্রায় দুশো জন কর্মী। এদিন সবাই প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্র সহ কামারহাটির তৃণমূল নেতৃত্বের উপস্থিতিতে রাজ্যের শাসক দলে যোগদান করেন।

তৃণমূলে যোগ দান করে সুশান্ত চট্টোপাধ্যায় জানান, আমি আগাগোড়া সমাজের কাজ করতাম কিন্তু কোন রাজনৈতিক দলের নেতৃত্বে কাজ করিনি। কিন্তু যে দল আমাদের রাজ্যের উন্নয়ন করছেন তাদের সঙ্গে থেকে এই উন্নয়নের কাজ করতে চাই বলে জানান সুশান্তবাবু। আর সেই কারণেই মদন মিত্রের হাত ধরে আজ তৃণমূলে যোগ দান বলে জানিয়েছেন সুশান্তবাবু।

তৃণমূলে যোগ দিলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়ের দাদা
তৃণমূলে যোগ দিলেন লকেট চট্টোপাধ্যায়ের দাদা

তবে এই বিষয়ে তাঁর পরিবারের সঙ্গে কোনও আলোচনা হয়েছে কিনা জানতে চাওয়া হয় সুশান্তবাবুর কাছে। সেই প্রসঙ্গে তিনি জানিয়েছেনম, পরিবারের সমর্থন নিয়ে আমি তৃণমূলে যোগদান করছি। তবে সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় তার নিজের দলের কাজ করবেন আর আমি আমার মত আমার দলের কাজ করবো।”

অন্যদিকে, বিজেপির রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ যখন সংসদের অধিবেশনে যোগ দিতে দিল্লিতে, তখন তাঁর গড়ে বড়সড় ভাঙন ধরালো তৃণমূল। তাঁরই লোকসভা কেন্দ্র এলাকায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিলেন চার প্রভাবশালী নেতা।

পড়ুন আরও- ‘অতীত ভুললে ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল হতে পারে না’, শুভেন্দুর মন্তব্য ঘিরে জোর জল্পনা

গত কয়েকমাস ধরে পদ্মফুল শিবির ছেড়ে ঘাসফুল শিবিরে আসার হিড়িক পড়েছে। বুধবারই দিলীপ ঘোষের খাসতালুক খড়গপুরের চার প্রভাবশালী বিজেপি নেতা কলকাতার তৃণমূলে ভবনে এসে দলবদল করেন।

তাঁরা হলেন সংসদ প্রতিনিধি কমিটির সদস্য রাজদীপ গুহ, বিজেপির খড়গপুর উত্তর মণ্ডল প্রাক্তন সভাপতি অজয় চট্টোপাধ্যায়, খড়গপুরে বিজেপির শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি শৈলেন্দ্র সিং ও খড়গপুরের হেভিওয়েট বিজেপি নেতা সজল রায়। তাঁদের হাতে তৃণমূলের পতাকা তুলে দেন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।