বেঙ্গালুরুঃ বিএস ইয়েদুরাপ্পা মুখ্যমন্ত্রী হন। এমনটাই চান বিজেপি সাংসদ শোভা কারান্ডলাজে। তাই ইতিমধ্যেই মনের ইচ্ছা জানিয়ে ইয়েদুরাপ্পার হয়ে ভগবানের কাছে প্রার্থনা করেছেন তিনি। কর্ণাটকের রাজনৈতিক অস্থিরতা কাটিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে ইয়েদুরাপ্পাকে দেখতে চেয়ে ১০০০টি সিঁড়িও ভেঙেছেন এক বিজেপি সাংসদ। সিঁড়ি ভেঙে চামুণ্ডি পাহাড়ে অবস্থিত শতাব্দী প্রাচীন চামুণ্ডেশ্বরী মন্দিরে পৌঁছে দেবীর কাছে প্রার্থনা করেছেন তিনি। আর স্থানীয়দের কল্যাণে এই পুরো ঘটনা ক্যামেরাবন্দী হয়ে যায় অচিরেই।

এই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, কর্ণাটকের ঐতিহ্যবাহী গোলাপি শাড়ি পরে মন্দিরের সিঁড়ি ভেঙে পাহাড়ে চরছেন সাংসদ। সঙ্গে রয়েছেন স্থানীয় বিজেপির নেতা-কর্মীরা। পাহাড়ি দুর্গম পথে সিঁড়ি ভেঙে উঠতে গিয়ে গলদ-ঘর্ম অবস্থা সকলেরই। কিন্তু, তাতে কি! হাঁটা থামাচ্ছেন না কেউই। অবশেষে সবাইকে নিয়ে ১০০০টি সিঁড়ি ভেঙে ৩৩০০ ফুট উপরের মন্দিরে পুজো দেন উদুপি-চিকমাগলুর সাংসদ শোভা কারান্ডলাজে।

বৃহস্পতিবার দিনভর নানা টানাপোড়েনে কর্ণাটক বিধানসভার অধিবেশন মুলতুবি হয়ে যায়। থমকে যায় আস্থা ভোটের প্রক্রিয়া। ক্ষোভ জানিয়ে বিধানসভাতেই রাত কাটান প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পা। সেই সঙ্গে সমস্ত বিজেপি বিধায়করা। আর শুক্রবার সকালে প্রাতঃভ্রমণ শেষে বিধানসভাতেই প্রাতরাশ সারেন বিজেপি বিধায়করা। এসময়ে তাঁদের সঙ্গে ছিলেন কর্ণাটকের উপমুখ্যমন্ত্রী ও কংগ্রেস নেতা জি পরমেশ্বরও।

এপ্রসঙ্গে শোভা বলেন, “কংগ্রেস ও জেডি(এস)-এর ১৫ থেকে ১৬ জন বিধায়ক ইস্তফা দিয়েছেন। তাই আস্থা ভোটে আমরাই জয়ী হব। কারণ, আমাদের বিধায়ক সংখ্যা অনেক বেশি। যদিও রাজ্যপাল ঠিক করবেন সরকার গড়ার জন্য কাকে ডাকবেন। তবে কর্ণাটকে আমরা সরকার গড়ব বলেই আমরা বিশ্বাসী।”