স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: তৃণমূলের ৪২ এ ৪২টি আসন সোনার পাথর বাটি। গতবারের চাইতেও অনেক কম আসন বাংলায় পাবে তৃণমূল। যা খুব ভালভাবে মমতা বন্দোপাধ্যায় টের পেয়েছেন বলেই একই আসনে চারবার নির্বাচনী সভা করতে আসতে হচ্ছে তাঁকে।

আরও পড়ুন- ‘বাঘিনী’কে আটকাতে নির্বাচন কমিশনে সিপিএম

সোমবার দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমন্ডি এলাকায় কর্মী সভায় এই মন্তব্যই করলেন বিজেপির জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার। এদিন কর্মীসভা শেষে সাংবাদিকদের সাথে কথা প্রসঙ্গে তিনি বলেন মমতা বন্দোপাধ্যায় খুব ভাল করেই বুঝে গেছেন যে এবারে তৃণমূলের জয় কতটা অনিশ্চিত। বিশেষ করে বালুরঘাট কেন্দ্রে এবারে আর অর্পিতা ঘোষ যে জিততে পারবে না। আর এই কারণেই তিনি বালুরঘাট আসনে চার চারটি সভা করতে উড়ে আসছেন।

আরও পড়ুন- তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপি কর্মীদের মারধোরের অভিযোগে উত্তাল বাঁকুড়া

পাশাপাশি বিজেপির শুভেন্দু সরকার একথাও বলেন যে চার বার এসেও মমতা বন্দোপাধ্যায় তাঁর দলী প্রার্থীকে জেতাতে পারবেন না। কারণ এলাকার মানুষ তৃণমূলে ঔদ্ধত্যতে বীতশ্রদ্ধ হয়ে গিয়েছেন। পাশাপাশি কেন্দ্রে বিজেপির সবকা বিকাশ সবকা সাথ নীতিতে গত পাঁচ বছরে দেশ যে ভাবে এগিয়ে গিয়েছে তাতে মানুষ এখন পদ্ম ছাড়া আর কাউকেই ভোট দিবেন না বলেই তিনি দাবী করেছেন।

আরও পড়ুন- তৃণমূল-সিপিএমের ব্যানার-পতাকা ছিঁড়ে পুড়িয়ে দেওয়ায় অভিযুক্ত বিজেপি

এব্যাপারে তৃণমূলের জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্র জানিয়েছেন যে বিজেপির কে কি বলছেন বা দিবাস্বপ্ন দেখছেন তাতে মা মাটি মানুষের কোন যায় আসে না। কারণ শুধু বালুরঘাটেরই নয় গোটা বাংলার মানুষ খুব ভাল ভাবেই বুঝে গিয়েছেন যে বিজেপি আসলে বড়লোকদের দল। বাংলার মানুষ এটাও জানেন যে সাধারণের কথা একজনই চিন্তা করেন। তিনি হচ্ছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়।