আগরতলা: মোদী সরকারের প্রথম জমানায় সম্পূর্ণরূপে সম্ভব হয়ে ওঠেনি সুদিন নিয়ে আসা। তবে তা সম্পন্ন হয়ে যাবে দ্বিতীয় জমানায়। এমনই মনে করেন বিজেপি নেতা রাম মাধব।

শুক্রবার দলীয় জনসভায় ত্রিপুরার রাজধানী শহর আগরতলায় হাজির ছিলেন বিজেপির জাতীয় সাধারণ সম্পাদক। সেখানেই তাঁর দল ভারতীয় জনতা পার্টি এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি।

সেই সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়েই আগামি অল্প কয়েক বছরে যে সুদিন আসন্ন তা স্পষ্ট ভাষায় বিঝিয়ে দিয়েছেন রাম মাধব। তিনি দাবি করেছেন যে আগামী তিন বছরের মধ্যে দেশে কোনও বেকার থাকবে না। তিনি বলেছেন, “বর্তমানে দেশকে নৃততে দিচ্ছেন বিজেপির মোদী, ভবিষ্যতেও এই ধারা বজায় থাকবে। ২০২২ সালের মধ্যে আমরা নতুন ভারত গড়ব। সেই ভারতে গৃহহীনতার কোনও চিহ্ন থাকবে না। থাকবে না বেকারত্বের কোনও চিহ্ন।”

এই ধারা আগামী আরও সিকি শতক সময়েও বজায় থাকবে বলে দাবি করেছেন রাম মাধব। কারণ ২০০২ সালের ২৫ বছর পরে আসবে ২০৪৭ সাল। যা কিনা দেশের স্বাধীনতার ১০০ বছর। সেই সময়ে বিশ্বের দরবারে ভারতের অবস্থান এক নতুন রূপ পাবে বলেও দাবি করেছেন এই বিজেপি নেতা। তাঁর মতে, “২০৪৭ সালে স্বাধীনতার শতবর্ষে ভারত বিশ্বগুরু হিসেবে জায়গা করে নেবে।”

মোদী সরকারের প্রশংসার সঙ্গে তাঁর দল ভারতীয় জনতা পার্টি সম্পর্কেও অনেক কথা বলেছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা রাম মাধব। এক বছর আগে প্রথমবারের জন্য ক্ষমতা পাওয়া রাজ্য ত্রিপুরায় দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, “জাতীয়তাবাদ বিজেপির ডিএনএ-তে রয়েছে, এটাই বিজেপির পরিচয়। ভোটের সময়েই হোক বা পরে বিজেওই মানেই জাতীয়তাবাদ এবং জাতীয়তাবাদ মানেই বিজেপি।”