স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রাজ্যের পুরোহিতদের তৃণমূল কংগ্রেস সরকার ভাতা দেওয়ার কথা চিন্তা করছে। তা জানতে পেরেই আক্রমনাত্মক হয়েছে বিজেপি। রাজ্য বিজেপির জাতীয় সম্পাদক রাহুল সিনহার বক্তব্য, তৃণমূলের ইসলামিকিকরণ হয়েছে। সেই ইসলামের তকমাকে মুছে ফেলার জন্যই এই প্রচেষ্টা। তবে শ্যাম, কূল কিছুই থাকবে না।

শুক্রবার কলকাতার কলকাতার রাণী রাসমণি অ্যাভিনিউতে এক পুরোহিত সম্মেলনের আয়োজন করেছিল তৃণমূল। আর আগেও জেলাতে এই ধরণের সম্মেলন হয়েছে। কলকাতায় রানী রাসমণির সম্মেলনে রাজ্যের মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘পুরোহিতদের ভাতার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে দরবার করব আমি।’ রাজীবের মন্তব্যের পরই হৈ হৈ-রৈ পরে যায় রাজ্য বিজেপির সদর দফতরে।

রাহুল সিনহা বলেন, পুরোহিতরা ভালো করেই জানেন তৃনমূল প্রতারক। এর আগেও তৃনমূল অনেক এই ধরনের পুরোহিত সভা করেছিল। কিন্তু পুরোহিতরা বিজেপিকেই ভোট দিয়েছে। কারণ তারা জানে, তৃনমূল পশ্চিমবঙ্গকে বাংলাদেশ বানাতে চায়। রাজ্যে ইমাম এবং মোয়াজ্জমদের ভাতা দেওয়া নিয়ে বিরোধীদের সমালোচনা কুড়িয়েছে তৃনমূল কংগ্রেস সরকার।

কলকাতার বিভিন্ন শ্মশানে কর্মরত ব্রাহ্মণদের ভাতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কলকাতা পুরসভা। কিন্তু, পুরোহিতদের কোনও ভাতার ব্যবস্থা ছিল না। কিন্তু মন্ত্রী রাজীবের কথার মধ্যে দিয়েই এবার নতুন করে রাজ্যের সমস্ত পুরোহিতরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তরফ থেকে ভাতা পাওয়ার আশা করতে শুরু করেছেন। শুক্রবার রাজীব বেশ কিছু কথা বলেছেন।

রাজীবের বক্তব্য, রাজ্যের পুরোহিতরা খুব কষ্টে রয়েছেন। তাঁদের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া উচিত। রাজীব আরো বলেছেন, বিজেপি ‘রাম রাম করছে। রামকে যেন পার্টির এজেন্ট বানিয়ে ফেলেছে। রাহুলের পালটা বক্তব্য, শুনুন হিন্দু ভোটকে পুরোহিত নিয়ন্ত্রণ করে না। তৃণমূলের ধাপ্পাবাজি পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে।