স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্বের কেউ নাকি শোভন চট্টোপাধ্যায়কে ফোন করেছেন। বলেছেন পুরান দলে ফিরে যেতে। বিষয়টি নিয়ে ভাবছে না বিজেপি। রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু জানান,কোনও বন্ধুর সঙ্গে কথাবার্তা হতেই পারে। বিজেপি ভাবছে না।

সায়ন্তনবাবুর বক্তব্য, শোভন চট্টোপাধ্যায়কে বিজেপি এখনো ব্যবহার করেনি। সুযোগের অভাবে বা তাঁর ব্যক্তিগত সমস্যা। পার্টিতে বৈঠকে তিনি আসেননি। সায়ন্তনের মতে দল গণতান্ত্রিক পদ্ধতি তে চলে। শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় দুজনকেই ব্যবহার করবে।

সম্প্রতি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য সংবাদমাধ্যমে এসেছে। সেখানে বৈশাখী বলেছেন, “তৃণমূলের শীর্ষনেতারা তাঁর (শোভন চট্টোপাধ্যায়ের) খবর রাখেন। তাদেরই কেউ ওকে ফোন করেছিলেন।” কিছুদিন আগের কথা, বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরতে পারেন শোভন চট্টোপাধ্যায়, এই রকম একটি জল্পনা তৈরি হয়েছিল। যদিও শোভন সংবাদমাধ্যমে জানান, এত তাড়াতাড়ি সেরকম কোনও সিদ্ধান্ত নিতে চান না৷

শোভন বলেছিলেন, এই সব ব্যাপারে ভাবনা, চিন্তা এবং আলোচনার সুযোগ নেই৷ অহেতুক মন্তব্য করে বিড়ম্বনা তৈরি করারও কোনও জায়গাও নেই৷ শোভনকে প্রশ্ন করা হয়, যদি পার্টি (তৃণমূল কংগ্রেস) থেকে বলে তবে কী করবেন? শোভন জবাব দেন, কিছু কিছু ব্যক্তি দলের ভিতরে থেকে দলের প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে যা বলছেন, তাতে দলের বিড়ম্বনা তৈরি হচ্ছে৷ দলের নেতৃত্বকে জানিয়েছি। দলের নেতৃত্ব ‘ইন-ক্যামেরা’ তাদের বক্তব্য আমাদের’কে বলছেন৷ সেই পরিপ্রেক্ষিতেই কিন্তু অচলাবস্থা৷ শোভন এও বলেছেন, ধৈর্য ধরুন, দল এবং আমাদের সিদ্ধান্ত জানতে পারবেন৷