স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর জনসভার আগে ব্রিগেডে প্যারেড গ্রাউন্ড পরিদর্শন করল বিজেপি৷ রাজ্য বিজেপির একটি দল এদিন সভাস্থল পরিদর্শন করে৷ বিজেপির রাজ্যের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়র নেতৃত্বে ওই দলে ছিলেন – সঞ্জয় সিং এবং শিশির বাজোরিয়া৷

প্রসঙ্গত আগামী ৩ এপ্রিল রাজ্যে জনসভা করবেন প্রধানমন্ত্রী৷ কলকাতায় ব্রিগেডে জনসভা ছাড়াও শিলিগুড়িতে তাঁর জনসভা করার কথা৷ বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহও সভা করবেন রাজ্যে৷ আপাতত যা ঠিক, ২৯ মার্চ আলিপুরদুয়ারে ওই সভা হবে৷ ১১ এপ্রিল রাজ্যে প্রথম দফার নির্বাচন৷

উত্তরবঙ্গের কোচবিহার এবং জলপাইগুড়িতে ওইদিন নির্বাচন হবে৷ মোদীর শিলিগুড়ার সভা মূলত ওই দুই কেন্দ্রের প্রার্থীদের সমর্থনেই হবে৷ তবে ৩ এপ্রিলের পরেও প্রধানমন্ত্রীকে কলকাতায় নিয়ে আসার প্রচেষ্টাও বিজেপিতে শুরু হয়েছে৷ শিলিগুড়িতেও মোদীর জনসভার প্রাক প্রস্তুতি দেখতে বৈঠক করেছেন রাজ্যে বিজেপির সহ পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন৷

মেদিনীপুরের কলেজ কলেজিয়েট মাঠে প্রধানমন্ত্রীর জনসভাতে মঞ্চের একাংশের কাঠামো ভেঙে পড়ে৷ সভায় উপস্থিত কিছু দর্শক আহত হন৷ আহতদের দেখতে প্রধানমন্ত্রীকে হাসপাতলে যেতে হয়৷ ওই ঘটনার পুনরাবৃত্তি আর চায়না রাজ্য বিজেপি৷ প্রধানমন্ত্রীর সর্বচ্চস্তরের নিরাপত্তার দায়িত্বের দেখভাল করে পিএমও৷ নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিভিন্ন এজেন্সিদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখে প্রধানমন্ত্রীর অফিস৷ তবে, প্রধানমন্ত্রী ব্রিগেডে যে মঞ্চে ভাষণ দেবেন তা কোথায় হবে বা কারা তৈরি করবে, সেই দায়িত্ব রাজ্য বিজেপির৷ সেক্ষেত্রে রাজ্যের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়৷

ফাইল ছবি

বিজেপি রাজ্যে ২৩টি আসন ‘টার্গেট’করে প্রচারে নেমেছে৷ এখনও সব প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেনি কেন্দ্রের শাসক দল৷ সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ সাম্প্রতিক অতীতে রাজ্যে বেশ কয়েকটা সভা করেছেন৷ রাজ্যে ২৩টির বেশি আসনে বিজেপি জিতবেই – শাসক তৃণমূল কংগ্রেসকে চ্যালেঞ্জ করে গিয়েছেন তিনি৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনে ৩ থেকে ২৭ শতাংশ ভোট বেড়েছে বিজেপির৷ ৭ হাজার আসনে বিজেপি প্রার্থীরা জিতেছে৷ লোকসবা নির্বাচনে যা আশায় রাখছে বিজেপিকে৷