স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মেঠো সুরের কারিগরদের নিয়ে এবার কলকাতায় বিশাল সভার আয়োজন করতে চলেছে বিজেপি। বাউল, ভাটিয়ালি থেকে কীর্ত্তন – শিল্পীরা গেরুয়া শিবিরের আমন্ত্রণে শহরের মহাজাতি সদনে আর কিছুদিনের মধ্যেই তাঁদের সুরের ডালি মেলে ধরবেন।

সেই সুরে সুর মেলাবেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রাজ্যের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। থাকবেন মুকুল রায়, রাহুল সিনহাও। রাজ্য বিজেপি সূত্রে এমনটাই খবর পাওয়া গিয়েছে। অনুষ্ঠানের আয়োজক, বিজেপি প্রভাবিত একটি সংগঠন। শিল্পীদের নিয়েই এই সংগঠন তৈরি। সারা বাংলার লোকগীতি শিল্পীরা এই গেরুয়া সংগঠনে যোগ দিয়েছেন। বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থ নস্কর এই সমাবেশের দায়িত্বে রয়েছেন। লোকশিল্পীদের মধ্যে অনেক আগে থেকেই তৃণমূল কংগ্রেস প্রভাব বিস্তার করতে পেরেছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার লোকশিল্পীদের জন্য ভাতা এবং অন্যান্য সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা করেছে। দলীয় এবং বিভিন্ন সরকারি অনুষ্ঠানের আগে লোকশিল্পীদের নিজের শিল্পকর্ম দেখানোর সুযোগ দেওয়া হয়েছে। আর ফলে তাঁদের রোজগারও বেড়েছে। কিন্তু, সব কিছুই এত সুখের নয় সেই শিল্পীদের। অভিযোগ, তৃণমূল নেতাদের স্বজন পোষণ করতে করতে অনেক শিল্পীই ক্লান্ত। অনেকেই প্রাপ্য টুকু পাননা। ক্ষোভ জমেছে অনেকের মনেই। সেই ক্ষোভের নদীতে তরী ভাসিয়েছে বিজেপি।

জঙ্গলমহলে বিজেপি লোকসভা নির্বাচনে ভালো ফল করেছে। সেই এলাকায় অনেক শিল্পী রয়েছেন। এছাড়াও উত্তরবঙ্গ থেকেও লোক শিল্পীদের মন ঘুরে গিয়েছে। রাজ্য বিজেপির প্রধান পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় নিজেই সুগায়ক। দিলীপ ঘোষকেও গান গাইতে দেখেছে খবরের ক্যামেরা। রাজ্য সরকার যদি মহাজাতি সদনকে গেরুয়া শিবিরের লোক সম্মেলনের জন্য ছেড়ে দেয়, তবে সেখানে শিল্পীদের সঙ্গে গলা মেলাবেন শীর্ষ নেতারাও।