নয়াদিল্লি: লোকসভা ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হয়ে গিয়েছে৷ একে একে রাজনৈতিক দলগুলি প্রার্থীর নাম ঘোষণা করছে৷ তবে কোনও প্রার্থী তালিকা বের না করেও প্রচার ঠিক চালিয়ে যাচ্ছে বিজেপি৷

বিজেপি এখনও তাদের প্রার্থী তালিকা তৈরির কাজ সম্পূর্ণ করে উঠতে পারেনি৷ এদিকে ১১ এপ্রিল প্রথম দফার ভোট৷ প্রার্থী তালিকা ঘোষণায় যত দেরি হবে তত প্রচারের সুযোগ কম পাবেন প্রথম দফার প্রার্থীরা৷ তাই প্রার্থী তালিকার কাজ সম্পূর্ণ করতে শনিবার গভীর রাতে বৈঠকে বসে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বৈঠকের পৌরহিত্য করেন৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ৷

শনিবার রাত ২টোর সময় দিল্লির সদর দফতরে বিজেপির সেন্ট্রাল ইলেকশন কমিটি বৈঠকের ডাক দেয়৷ সূত্রের খবর ১১টি রাজ্যের একাধিক কেন্দ্রে প্রার্থী বাছাই চূড়ান্ত করতে এই বৈঠক ডাকা হয়৷ এই ১১টি রাজ্য হল বিহার, উত্তরাখণ্ড, অসম, অরুণাচল প্রদেশ, মণিপুর, ত্রিপুরা, অন্ধ্রপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, মহারাষ্ট্র ও জম্মু কাশ্মীর৷ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ, রাজনাথ সিং, অরুণ জেটলি ও কিরণ রিজুজু এই বৈঠকে যোগ দেন৷

সূত্রের খবর, এই সব রাজ্যের এমন কিছু আসন আছে যেখানে বিজেপির জনভিত্তি অত মজবুত নয়৷ আঞ্চলিক দল থেকে নেতাদের বিজেপিতে এনে অথবা অন্য দলের বড় নেতার সমর্থনে এই আসনগুলিতে জয়ের আশা কমই দেখছে পার্টি নেতৃত্ব৷ ফলে এই সব আসনের রণনীতি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয় বৈঠকে৷ আগামী ১১ এপ্রিল প্রথম দফার ভোট হবে এই রাজ্যগুলিতে৷ এছাড়া ওই দিন উত্তরাখণ্ড, পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তরপ্রদেশের বেশি কিছু আসনে ভোট আছে৷ রবিবার অমিত শাহ কোর কমিটির বৈঠক ডেকেছেন৷ এরপরই বিজেপি তাদের প্রথম প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করবে বলে সূত্রের খবর৷ এদিকে কংগ্রেস শনিবারই তাদের চতুর্থ তালিকা প্রকাশ করেছে৷