নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: শুক্রবার ফের নতুন করে উত্তপ্ত হয়ে উঠল ভাটপাড়া৷ মৃতদেহ নিয়ে বিজেপির মিছিল শুরু হতেই উত্তেজনা বাড়তে শুরু করে৷ পুলিশ-বিজেপি খণ্ডযুদ্ধে নতুন করে উত্তপ্ত ভাটপাড়া৷ শোকমিছিলে নেতৃত্বে রয়েছেন সাংসদ অর্জুন সিং৷ উপস্থিত রয়েছেন সুনীল সিং সহ আরও অনেকেই৷

কয়েক হাজার মানুষ ভাটপাড়া-কাঁকিনাড়ায় রয়েছেন নতুন থানা এলাকাতে৷ পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটবৃষ্টি চলে বলে সূত্রে খবর৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটায় পুলিশ৷ পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে স্থানীয় বাসিন্দারা৷ তাদের অভিযোগ, পুলিস যদি সঠিক সময়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করত তাহলে ভাটপাড়ায় আজ এই অবস্থা হত না৷

প্রসঙ্গত, পুলিশ দুষ্কৃতীদের খণ্ডযুদ্ধে গুলি, বোমা নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনার মধ্যে পড়ে নিরীহ ২ যুবকের মৃত্যুতে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়া থানার অন্তর্গত কাঁকিনাড়া বাজার এলাকা। বৃহস্পতিবার সকালে ভাটপাড়ায় নতুন থানা উদ্বোধনের মুহুর্তে পুলিশ ও দুষ্কৃতীদের খন্ডযুদ্ধ শুরু হয়। পুলিশের দাবি, বৃহস্পতিবার উদ্বোধন হওয়ার আগেই ভাটপাড়া নতুন থানা লক্ষ্য করে বোমাবাজি ও ইঁট বৃষ্টি শুরু করে বহিরাগত দুষ্কৃতীরা । পাল্টা প্রতিরোধে নামে পুলিশও।

পড়ুন: ভাটপাড়ার হিংসায় রাজ্যকেই দুষছেন প্রাক্তন তৃণমূল নেতা

শুরু হয় দুপক্ষের মধ্যে গুলি বোমার লড়াই। নতুন ভাটপাড়া থানার উদ্বোধন করতে আসার পথে এলাকার উত্তপ্ত পরিস্থিতির খবর পেয়ে মাঝ রাস্তা থেকে ফিরে যেতে বাধ্য হন রাজ্য পুলিশের ডিজি বীরেন্দ্র। অবস্থা এতটাই অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে যে স্থগিত করে দেওয়া হয় ভাটপাড়া থানার উদ্বোধন।

ঘটনার পর রাতেই দিল্লী থেকে বারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং বলেন, “পুলিশ পয়েন্ট ব্লাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করে নিরীহ মানুষদের খুন করেছে । আমরা এই ঘটনার প্রতিবাদে বৃহত্তর আকারে থানা ঘেরাও কর্মসূচি পালন করব। নন্দীগ্রামের ধাঁচে আন্দোলন শুরু হবে । এই পুলিশি জুলুম চলবে না ।”

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও