স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সর্বকালের রেকর্ড ভাঙ্গতে চলেছে গেরুয়া শিবিরের ব্রিগেড৷ আপনারা হয়ত ভাবছেন ভিড়ের কথা বলছি! আসলে তা নয়৷ বলতে চাইছি জনসভার জন্য ব্রিগেডকে আধুনিকভাবে সাজিয়ে তোলা, এসপিজি নিরাপত্তার কথা৷ সবচেয়ে বড় চমক হল ব্রিগেডে সাধারন মানুষের আসা,লযাওয়ার জন্য ট্রেন ভাড়া করা হয়েছে৷ সেদিক থেকে বলা যেতেই পারে এটা বিজেপির হাইটেক ব্রিগেড৷ যেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁর বক্তব্য পেশ করবেন৷

আরও পড়ুন: কংগ্রেসে’র ইস্তেহা’র বিপজ্জনক, বাস্তবে রূপায়ণে’র অযোগ্য: অরুণ জেটলি

সূত্রের খবর, ব্রিগেডের জন্য বিজেপি চারটি আস্ত ট্রেন ভাড়া করেছে৷ ট্রেনগুলো ছাড়বে লালগোলা, রামপুরহাট, পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রাম থেকে৷ ওইসব অঞ্চলের মানুষ যারা ব্রিগেডে আসবেন তাদেরকে শিয়ালদহ ও হাওড়া স্টেশনে নিয়ে আসা হবে৷ আবার ব্রিগেড শেষে ওই ট্রেনে করেই তাদেরকে যথাস্থানে পৌঁছে দেওয়া হবে৷

পঞ্চায়েতের ফলেই স্পষ্ট জঙ্গলমহল অধ্যুষিত ঝাড়গ্রাম ও পুরুলিয়া , লাল মাটির বীরভূমে ভোট বেড়েছে বিজেপি৷ নবাবের জেলা মুর্শিদাবাদে এবার মেরুকরণের ভোটে ভালো ফলের আশা করছে পদ্ম বাহিনী৷ মনে করা হচ্ছে পথের অঙ্কের সঙ্গেই ভোটের অঙ্ক মাথায় রেখেই এই চার জায়গা থেকে কর্মী, সমর্থকদের আনা গোনার জন্য ট্রেনের বন্দোবস্ত করা হয়েছে৷

বিজেপির দাবি, বাসে বা অন্য কোনও গাড়িতে ব্রিগেডে পৌঁছতে অনেক দেরি হয়৷ তাছাড়া সড়ক পথে আসার সময় শাসক দলের বাঁধার মুখে পড়তে হয় বিজেপি কর্মী সমর্থকদের৷ তাই এবার শাসক দলকে জব্দ করতে বিকল্প হিসাবে রেলপথকে বেছেছেন মুরলীধর সেন লেনের নেতারা৷ এছাড়া কম সময়ে ও নিরাপদে-ও মানুষ ব্রিগেডে এসে আবার ফিরে যেতে পারবে৷

কলকাতায় মিটিং মিছিল হলেই দেখা যায় সাধারন ট্রেনে উঠে পড়েন রাজনৈতিক দলের কর্মী সমর্থকরা৷ তাতে যারা প্রতিদিন ট্রেনে কর্মস্থলে আসেন তারা সমস্যায় পড়েন৷ সেটা যাতে না হয় তার জন্যই ট্রেন ভাড়া করা৷ তবে ট্রেন পথের পাশাপাশি সড়ক পথেও প্রচুর মানুষ ব্রিগেডে আসবেন৷

আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রী’র ব্রিগেড সভায় নিরাপত্তা’র দায়িত্বে এসপিজি

ব্রিগেডে তৈরি হয়েছে আলুমিনিয়ামের হ্যাঙ্গার৷ থাকছে বিশেষ ছাউনি৷ এতদিন মানুষ ব্রিগেডকে যে চেহারায় দেখেছে এবার সেই ব্রিগেডকেই দেখা যাবে অন্যরূপে৷ মোদির ব্রিগেড সভার প্রস্তুতি প্রায় শেষ পর্যায়ে৷ প্রধানমন্ত্রীর এই জনসভায় ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের দিকে থাকছে পাশাপাশি তিনটি মঞ্চ৷ মূল মঞ্চটি আকারে বড়। বিজেপি সূত্রে খবর, মূল মঞ্চে বসবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং রাজ্যের বিজেপি প্রার্থীরা৷ এছাড়া মূল মঞ্চের দু’পাশে থাকছে ছোট দু’টি মঞ্চ৷ একটি মঞ্চে বসবেন বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। অন্যটিতে জেলা সভাপতি ও জেলা নেতৃত্বরা বসবেন৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।