ফাইল ছবি৷

নয়াদিল্লি: চলছে সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচন৷ ৬ দফা ইতিমধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে৷ বাকি আরও এক দফা৷ চলতি লোকসভায় বাংলাকে যেন পাখির চোখ করেছে বিজেপি৷ আর এরই মধ্যে কলকাতায় অমিত শাহের রোড শো-তে ধুন্ধুমার কাণ্ড৷ পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছয় যে মারামারি থেকে বিদ্যাসাগর কলেজের মূর্তিও ভেঙে ফেলা হয়৷ অভিযোগের তির বিজেপির দিকে যায়৷ এমনকি দুটি এফআইআর-ও দায়ের করা হয়৷

তৃণমূল-বিজেপি একে অপরকে এই ঘটনার জন্য দায়ী করে৷ বুধবারই দিল্লিতে সাংবাদিক সম্মেলন করে এই বিষয় নিয়ে মুখ খোলেন অমিত শাহ৷ তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন বাংলায় তৃণমূলের সময় শেষের পথে৷ আগামী ২৩ তারিখেই যা স্পষ্ট হয়ে যাবে৷

পাশাপাশি অমিত শাহ এও স্পষ্ট করে দেন, পঞ্চম এবং ষষ্ঠ দফার পরেই বিজেপি তার জয়ের যে লক্ষ্য, সেই সংখ্যক আসন পেয়ে গিয়েছে৷ শুধু তাই নয়, সপ্তম দফাতে ৩০০ অতিক্রম করতে চলেছে বিজেপি অর্থাৎ, আসনের দিকে থেকে সংখ্যাগরিষ্ঠ হতে চলেছে গেরুয়া শিবির৷

উল্লেখ্য, ৫৪৩ আসন নিয়ে লোকসভা নির্বাচন৷ ইতিমধ্যেই ৬ দফা হয়ে গিয়েছে৷ বাকি শুধু ১৯ মে-এর ভোট৷ একটা দলের ২৭২টি আসন প্রয়োজন জয়লাভের জন্য৷ ২০১৪ সালে বিজেপি ২৮২ আসনে জয়ী হয়ে দিল্লির মসনদে বসে৷ আর ৩০০-ও অতিক্রম করে যাবে বিজেপি, আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে সাংবাদিক সম্মেলন থেকে সেই কথাই বলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি৷

একই সঙ্গে বাংলায় নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি৷ তিনি বলেন, ‘৬ দফা ভোটে রিগিং করেছে তৃণমূল৷ অথচ এই গন্ডগোল দেখেও চুপ থেকেছে নির্বাচন কমিশন৷ পক্ষপাতিত্ব করেছে৷ কিন্তু ২৩ তারিখেই স্পষ্ট হয়ে যাবে সবকিছু৷ ২৩-এর বেশি আসন পেয়ে বাংলায় ক্ষমতায় আসবে বিজেপি’, আত্মবিশ্বাসী অমিত শাহ৷