নয়াদিল্লি: মারমুখী জনতার হাত থেকে মুসলিম দম্পতিকে বাঁচালেন দিল্লির এক বিজেপি কাউন্সিলর। উত্তর-পূর্ব দিল্লির যুমনা বিহারের ওই বিজেপি কাউন্সিলরের নাম প্রমোদ গুপ্তা। কাউন্সিলরের এই উদ্যোগে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে ওই পরিবারটি।

সিএএ ইস্যুতে রবিবার থেকেই অশান্ত হয়ে ওঠে উত্তর-পূর্ব দিল্লির বিস্তীর্ণ এলাকা। সোমবার রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ একদল উন্মত্ত মানুষ আচমকা হামলা চালায় যমুনা বিহারে। স্থানীয় বাসিন্দা সাহিদ সিদ্দিকির বাড়িতে চড়াও হয় প্রায় দেশশো জন। বাড়ি ঘিরে আগুন ধরানোর চেষ্টা করে উন্মত্ত জনতা। বাড়ির একতলায় থাকা একটি দোকানে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। একে একে ওই বাড়িতে থাকা গাড়িগুলিতে আগুন লাগানো হয়।

পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে স্ত্রী ও দু’মাসের শিশু সন্তানকে নিয়ে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন সাহিদ সিদ্দিকি। খবর পেয়ে সিদ্দিকীর বাড়িতে ছুটে যান স্থানীয় কাউন্সিলর তথা সিদ্দিকীর বন্ধু প্রমোদ গুপ্তা। উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করেন তিনি। তাঁরই প্রচেষ্টায় ওই বাড়ি ছেড়ে চলে যায় বাকিরা।

বন্ধু কাউন্সিলরের তৎপরতায় প্রাণে বাঁচে সিদ্দিকী পরিবার। সোমবার রাতের ঘটনা প্রসঙ্গে সাহিদ সিদ্দিকী বলেন, ‘একদল মানুষ আমাদের বাড়ি পাশ দিয়ে জয় শ্রী রাম স্লোগান দিতে দিতে যাচ্ছিল। আচমকা বাড়ি ঘিরে আগুন ধরানোর চেষ্টা করে। আমাদের ভাড়াটের দোকানে আগুন ধরিয়ে দেয়। একটি গাড়ি ও বাইকে আগুন ধরায়। আমি সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে বাড়ি থেকে পালাচ্ছিলাম। পুরনো বন্ধু ও স্থানীয় কাউন্সিলর প্রমোদ গুপ্তা এসে আমাদের রক্ষা করেন।’