স্টাফ রিপোর্টার, বালুরঘাট: মহকুমাশাসক থেকে শুরু জেলাশাসক, থানার ওসি থেকে শুরু করে পুলিশ সুপার, আইএএস ও আইপিএস মোট ছয় আধিকারিকের বিরুদ্ধে কমিশনের কাছে নালিশ জানাল বিজেপি। বালুরঘাটে উপস্থিত জাতীয় নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধি তথা দক্ষিণ দিনাজপুরের সাধারণ পর্যবেক্ষক সি মুনিয়ানাথনের হাতে এব্যাপারে লিখিত অভিযোগ করেছে জেলা বিজেপি।

যাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তাঁরা হলেন দক্ষিণ দিনাজপুরের বর্তমান জেলাশাসক, অতিরিক্ত জেলাশাসক সাধারণ কৃত্তিবাস নায়েক, বালুরঘাটের সদর মহকুমাশাসক ইশা মুখোপাধ্যায়, গঙ্গারামপুরের মহকুমা পুলিশ আধিকারিক বিপুল বন্দোপাধ্যায়, কুমারগঞ্জ থানার ওসি সুদীপ্ত দাস ও জেলার পূর্বতন পুলিশ সুপার আইপিএস প্রসূন বন্দোপাধ্যায়।

অভিযোগ, ছয়জনই পুরোপুরি শাসকদলের প্রতিনিধির কাজ করে চলেছেন। এমনকি গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময়ের কিছু ঘটনাকে এক্ষেত্রে উদাহরণ স্বরূপ তুলে ধরা হয়েছে অভিযোগপত্রে। এক্ষেত্রে বর্তমান জেলাশাসক বাদে বাকিরা প্রত্যেকেই পঞ্চায়েতে তৃণমূলকে সক্রিয়ভাবে সহযোগিতা করেছেন বলে অভিযোগ বিজেপির।

বর্তমান জেলাশাসকের বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনিও শাসকদলের হয়েই কাজ করছেন। এব্যাপারে জেলা বিজেপি সভাপতি শুভেন্দু সরকার জানিয়েছেন যে, শুক্রবার তাঁরা মোট ছয় জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন। সুষ্ঠ অবাধ ও নিরপেক্ষভাবে ভোট করাতে হলে অবিলম্বে এই ছয় আধিকারিককে তাঁদের বর্তমান দায়িত্ব থেকে সরিয়ে এই কেন্দ্র থেকে দূরে পাঠানোর দাবিও করা হয়েছে বলে বিজেপি সভাপতি জানিয়েছেন।

এদিকে বিজেপির করা অভিযোগ সম্পূর্ন ভিত্তিহীন বলে জানিয়েছেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্র। তিনি পালটা অভিযোগ করে বলেন যে বিজেপি তাঁদের দলীয় প্রার্থীর পরাজয় নিশ্চিত জেনেই সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ করছে। উলটে বিজেপিই এবারের নির্বাচনে গন্ডগোল বাধানো ও ভোটারদের ভীতি প্রদর্শনের পরিকল্পনা করছে বলেও বিপ্লব মিত্র অভিযোগ করেছেন।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ