স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: মানুষ পরিবারতন্ত্রকে ধ্বংস করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবে। সন্ত্রাস বন্ধ হওয়ার জন্য আমরা গণবিক্ষোভ করেছি। পুলিশ যদি এরপরে সংযত না হয়, তাহলে পুলিশকে সংযত করতে হলে কি করতে হবে সেটা আন্দোলনের মাধ্যমে আমরা তা দেখিয়ে দেব। এই ভাষাতেই পুলিশকে কড়া হুশিয়ার দিলেন তমলুক লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী সিদ্ধার্থ নস্কর৷

প্রার্থীর দাবি, দেশের স্বার্থে নরেন্দ্র মোদী পুনরায় প্রধানমন্ত্রী হবেন। শ্মশান হয়ে যাওয়া শিল্পাঞ্চল গুলোকে পুনরুজ্জীবিত করতে হবে। বেকার ছেলেমেয়েদের চাকরির ব্যবস্থা করা, রাস্তাঘাট ও বিশুদ্ধ পানীয়জল বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়া। নন্দীগ্রামে রেল প্রকল্প এখনও চালু হয়নি কেন? এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘‘উনি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) তো নিজেই রেলমন্ত্রী ছিলেন। উনি সেইসময় নিজে তো করতে পারতেন। আসলে এটা হচ্ছে মানুষের কাছে একটা ধোঁকা। এটা পুরোপুরি প্রতরনা। ধাপ্পাবাজি মানুষ সব বুঝে গিয়েছে।’’ এদিন তিনি মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে দু’শো শতাংশ জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী বলে জানান।

রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘যদি সুষ্ঠুভাবে ভোট হয় এবং মানুষ ভোট দিতে পারেন, তবে তৃণমূল প্রার্থীকে হারিয়ে বিজেপি জয়ী হবেন।’’ তাঁর দাবি, প্রথম দুটি পর্যায়ের ভোট গ্রহণে যে সব বুথে রাজ্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে, সেখানে অনেকে ভোট দিতে গিয়ে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছেন। তাই নির্বাচন কমিশনের কাছে দাবি জানিয়েছি, পরবর্তী পর্যায়ে সমস্ত বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করে ভোট গ্রহণের ব্যবস্থা হোক।

অন্যদিকে, কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দেবাশিষ সামন্ত ও ডামি প্রার্থী সৌরিন্দ্র মোহন জানা মনোনয়ন জমা দেন৷ এদিন তমলুকের ডহরপুরে জেলা সদর হাসপাতাল মোড়ে জড়ো হন জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা। মিছিলে ছিলেন রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়, তমলুক জেলা বিজেপির সভাপতি প্রদীপ দাস, জেলা বিজেপির অবজারভার সমীরণ সাহা, জেলার সাধারণ সম্পাদক নবারুণ নায়ক ও নীলাঞ্জন অধিকারী, কাঁথি সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রমাকান্ত প্রধান, অবজারভার মলয় সিনহা, বিজেপি নেতা অমলেন্দু পাহাড়ি প্রমুখ।

ডামি প্রার্থী সৌরিন্দ্র মোহন জানা বলেন, ‘‘সব দলেই ডামি থাকে। তাই দলের রাজ্য নেতৃত্বের নির্দেশে মনোনয়ন জমা দিয়েছি। কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দেবাশিষ সামন্ত প্রার্থী হতে পারলে মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেব।’’