স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ফের অর্জুন সিংহয়ের বিস্ফোরক মন্তব্য৷ এবার জানালেন, খাদ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ৷ ইতিমধ্যে তার বিরুদ্ধে ২০ কোটি টাকা আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে৷ খাদ্যমন্ত্রী কোথা থেকে পেলেন এত টাকা? এই সব প্রশ্ন তুলে তিনি আরও একবার শাসক দলকে একহাত নিয়েছেন৷ প্রাক্তন রেলমন্ত্রী দীনেশ ত্রিবেদীর বিরুদ্ধেও তোপ দেগেছেন অর্জুন সিং৷ তাঁর সঙ্গেই বারাকপুর আসনে মূল লড়াই প্রাক্তন রেলমন্ত্রী তৃণমূলের দীনেশ ত্রিবেদীর৷

দল বদলেছেন আবার ফুলও বদলে নিয়েছেন৷ ছিলেন ঘাসফুল হয়েছেন পদ্মফুল৷ এরপরেই অর্জুন সিংকে গদ্দার বলে পুরনো দল তৃণমূল কংগ্রেস৷ একটি মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে এসে হুঙ্কার ছেড়েছেন ভাটপাড়ার দাপুটে নেতা৷ তিনি আরও একবার স্পষ্ট জানিয়ে দেন লুকিয়ে দল ছাড়িনি৷ আমি গদ্দার হতে পারি না৷

আগেই জানিয়েছেন, অপেক্ষা করুন, অন্তত একশো বিধায়ক তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন৷ সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া ‘বাহুবলী’ নেতার চোখে তাঁর রাজনৈতিক দিদি মমতা এখন চক্ষুশূল৷ লোকসভা নির্বাচনে বারাকপুর কেন্দ্র থেকে পদ্মফুল চিহ্নে লড়াই করছেন অর্জুন৷

লোকসভা নির্বাচনে বারাকপুরে তাঁকে তৃণমূল প্রার্থী করেনি৷ মমতার সঙ্গে কালীঘাটে বৈঠকের পরেই দিল্লি গিয়ে দল বদলে বিজেপি হন অর্জুন সিং৷ তাঁকে বিজেপিতে টেনে এনেছেন একদা মমতার ভরসা মুকুল রায়৷ এর পরেই ভাটপাড়া ও বারাকপুরের রাজনৈতিক সমীকরণ দ্রুত পাল্টাতে শুরু করেছে৷ অর্জুন গোষ্ঠী বনাম বিরোধীদের দ্বন্দ্ব প্রবল বেড়েছে৷

সেই দ্বন্দ্বের সূত্র ধরেই মুখ্যমন্ত্রীর ভাইপো তথা ডায়মন্ডহারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্য ছিল, বারাকপুরে তৃণমূল প্রার্থী দীনেশ ত্রিবেদী দু লক্ষ ভোটে জিতবেন৷ এর পাল্টা জবাব দিয়ে নব্য বিজেপি অর্জুন বলেন, ‘‘অভিষেক সোনার চামচ নিয়ে এসেছেন৷ তিনি হঠাৎ যুবরাজ হয়ে গিয়েছেন৷ সিপিএমের মার তো আর খাননি, তাই তিনি সব বুঝলেও ভোট বোঝেন না৷’’

বিধাননগর পুরসভার মেয়র সব্যসাচী দত্ত কি বিজেপিতে আসছেন? এর উত্তর দেননি অবশ্য৷ তবে জানিয়েছেন, পুলিশকে দিয়ে ভোট করানো এক বিষয়৷ আর মানুষের ভোট যে অন্য বিষয় তা ফল প্রকাশের দিন অভিষেক বুঝতে পারবেন৷ এইভাবেই তিনি পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন তিনি৷ এদিন নরেন্দ্র মোদীকে মমতার চেয়ে বড় আসনে বসিয়ে কিছুটা হলেন নিজের জয়ের বিষয়ে নিশ্চিত করেন৷ পাশাপাশি দীনেশ ত্রিবেদীকে হুঙ্কার দেন ফল প্রকাশের দিনই সব দেখা যাবে৷