কলকাতা:  মোদীর নোট বাতিলের আগে দেশজুড়ে কোটি কোটি টাকা খরচ করে জমি কিনেছে বিজেপি। জমি কেনা থেকে বাদ পড়ল না এই রাজ্যেও। নোট বাতিলের মোদীর ঘোষণার কিছুদিন আগেই  চার কোটি টাকা ব্যায়ে ১৬ কাঠা জমি কেনে বিজেপি। একেবারে বেলঘড়িয়া এক্সপ্রেসওয়ের ধারে এই জমি কেনা হয়। দমদম বিমানবন্দর থেকে মাত্র ১০ মিনিট দূর। শুধু তাই নয়, বারুইপুরেও পুকুরসহ তিনতলা একটি বাড়ি কিনেছে বিজেপি শিবির। এছাড়াও বীরভূম, বাকুড়া সহ রাজ্যের বেশ কয়েকটি জায়গায় জমি চিহ্নিত করে ফেলেছে বঙ্গ বিজেপি  নেতৃত্ব। মোদীর টাকা বাতিলের ঘোষণার আগেই তড়িঘড়ি এইভাবে দেশজুড়ে কেন জমি কেনা হল তা নিয়ে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা। ইতিমধ্যে এই রাজ্যের বিরোধীরা বিজেপিকে আক্রমণ করতে শুরু করেছে। তাদের দাবি, তড়িঘড়ি বিজেপির কালো টাকা সাদা করতেই এভাবেই রাজ্য সহ দেশজুড়ে জমি কেনা হচ্ছে।

যদিও বিরোধীদের এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি নেতৃত্ব। বেলঘড়িয়া এক্সপ্রেসওয়ের ধারে জমি কেনার খবর স্বীকার করে নিয়ে রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, আমরা প্রতিটি জেলায় আধুনিক পার্টি অফিস তৈরি করার জন্য একবছর আগে থেকেই জমি দেখছিলাম। বিধানসভা নির্বাচন চলে আসায় তা একটু থমকে যায়। নির্বাচনপর্ব মেটার পর আমরা জমি কিনেছি। সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ’র নামে ওই জমি কেনা হয়েছে। তা কেনা হয়েছে তাঁর প্যান নম্বর দিয়ে এবং চেকে পেমেন্ট করেই।

প্রসঙ্গত, নোট বাতিলের আগে বিহার, রাজস্থানের মতো এ রাজ্যেও জমি-বাড়ি কিনল বিজেপি। আর তা নিয়েই শুরু রাজনৈতিক তরজা।