স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: এবছরের মতো শেষ বাঙালির সেরা উৎসব দুর্গাপুজো। মাকে ঘিরে এত আয়োজনের শেষ লগ্নে এসে তাই এখন শুধুই মন খারাপের পালা। তবুও বিষাদের মধ্যেই মাকে হাসি মুখে বিদায় জানাতে প্রস্তুত আম বাঙালি।

সোমবার সকাল থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে বিজয়ার প্রস্তুতি। গঙ্গার ঘাটগুলিতে রয়েছে কড়া নিরাপত্তা। এদিন বিশেষ করে বাড়ির পুজোগুলির বিসর্জন হয়৷ তবে কিছু বারোয়ারী পুজোরও প্রতিমার বিসর্জন দেওয়া হচ্ছে৷

পুলিশ সূত্রে খবর, বিসর্জনের জন্য ২৪টি ঘাট নির্দিষ্ট করা হয়েছে। এদিন প্রায় আঠারোশো প্রতিমা বিসর্জন হওয়ার কথা। নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকছেন ৩ হাজার পুলিশ কর্মী। প্রতিটি ঘাট ও ঘাটে যাওয়ার রাস্তায় ডিসি পদমর্যাদার অফিসাররা থাকবেন। বাকিগুলিতে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবেন অ্যাসিস্ট্যান্ট কমিশনার পদমর্যাদার অফিসাররা।২টি ওয়াচ টাওয়ার থেকে চলবে নজরদারি। থাকছে মহিলা পুলিশও।

পুলিশের পাশাপাশি বিসর্জনের ঘাটে রয়েছেন পুরসভার প্রতিনিধি দল৷ জলপথেও নজরদারির জন্য রয়েছে রিভার ট্র্যাফিক পুলিশ ও বিপর্যয় মোকাবিলা দল।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিসর্জনের ক্ষেত্রে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে প্রতিটি ঘাটে করা হয়েছে মার্কিং। ডিজে অথবা মাইক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। নির্দিষ্ট কয়েকজনকে ঘাট চত্বরে যাওয়ার অনুমতি। প্রতিমার জন্য গাড়ির সংখ্যাও নির্দিষ্ট করা হয়েছে।

প্রতিমা নিরঞ্জনের পরে যাতে কোনভাবে গঙ্গা দূষিত না হয় তার জন্যও পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতিবারের মত এবারও প্রতিমা নিরঞ্জনের পর কাঠামোগুলিকে ক্রেনের সাহায্যে তুলে অন্যত্র সরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এদিকে, বিসর্জনের জন্য কলকাতার বেশ কয়েকটি রাস্তা নির্দিষ্ট করা হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, এই রাস্তাগুলি হল,

১. যতীন্দ্রমোহন অ্যাভিনিউ-মদনমোহনতলা স্ট্রিট-রবীন্দ্র সরণি।

২. যতীন্দ্রমোহন অ্যাভিনিউ হয়ে বি কে পাল অ্যাভিনিউ হয়ে নিমতলা ঘাট স্ট্রিট।

৩. মহর্ষি দেবেন্দ্র রোড হয়ে আহিরীটোলা স্ট্রিট হয়ে স্ট্র্যান্ড ব্যাঙ্ক রোড।

৪. চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ-যতীন্দ্রমোহন অ্যাভিনিউ হয়ে বিডন স্ট্রিট হয়ে নিমতলা ঘাট স্ট্রিট হয়ে স্ট্র্যান্ড ব্যাঙ্ক রোড।

৫. বিবেকানন্দ রোড-কালীকৃষ্ণ ঠাকুর স্ট্রিট হয়ে ক্রস রোড ফাইভ।

৬. রাসবিহারী অ্যাভিনিউ হয়ে কালীঘাট রোড-টালিগঞ্জ রোড।

৭. হাজরা রোড হয়ে হরিশ মুখার্জি রোড হয়ে বলরাম বসু ঘাট রোড।

৮.রেড রোড হয়ে রানি রাসমণি অ্যাভিনিউ-কিংস ওয়ে হয়ে স্ট্র্যান্ড রোড।

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।