আমেদাবাদ:  লাগাতার বৃষ্টিতে জলের তোলায় মোদীর রাজ্য। বিধ্বস্ত রাজকোট। গোটা এলাকা জলের নীচে। আর এই অবস্থায় বাড়ি থেকে একচুলও বের হওয়া চ্যালেবঞ্জের ব্যাপার। আর এই অবস্থায় ওই গ্রামের জমজ সদ্যোজাত সহ এক মহিলাকে উদ্ধার করল ভারতীয় বায়ুসেনা। উদ্ধার করা হয়েছে ভিনচিয়া তহশিলের ওই গ্রামেরই আরও এক অন্তঃসত্ত্বাকে।

লাগাতার বৃষ্টিতে গোটা এলাকা জলের নীচে চলে যাওয়াতে সমস্ত রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়। বিচ্ছিন্ন সমস্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা। সেই সময়ে বায়ুসেনার উদ্ধারকারী দলের কাছে বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ খবর আসে যে, নানা মাত্রা গ্রামের দুই মহিলার অবস্থা খুবই গুরুতর। তাঁরা আসন্নপ্রসবা। খবর পেয়েই তাঁদের উদ্ধারের জন্য চেতক কপ্টার পাঠানো হয়, এমনটাই জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মুখপাত্র অভিষেক মতিমান। কার্যত উদ্ধারকারী দল নিজেদের জীবনকে বাজি রেখে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায়। কিন্তু সমস্যা মেটাতো দূর, আরও বেড়ে যায়!

কপ্টার যখন আকাশে উড়ছিল, তখন খবর আসে এক মহিলা ইতিমধ্যেই যমজ সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। তাঁকে অবিলম্বে উদ্ধার করা প্রয়োজন। বিকেল সোয়া পাঁচটা নাগাদ একটা নিরাপদ শুকনো ভূখণ্ড দেখতে পেয়ে অবতরণ করে কপ্টারটি। যমজ সন্তান সহ মহিলাকে উদ্ধার করে জাসডন হেলিপ্যাডে নিয়ে এসে সেখানে অপেক্ষায় থাকা মেডিক্যাল দলের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এরপর ফের নানা মাত্রা গ্রামে ফিরে গিয়ে আরও এক অন্তঃস্বত্ত্বাকে উদ্ধার করে কপ্টারটি। তাকেও যত্ন সহকারে মেডিক্যাল টিমের হাতে তুলে দেন বায়ুসেনার ওই উদ্ধারকারী দল।