ওয়াশিংটন: শহরযাপন পাখিদের সইছে না।শহরের ব্যস্ততা,যার সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে গাড়ির সংখ্যা। ফলত যানজট। সময়ে গন্তব্যে পৌছনোর তাগিদে লাফিয়ে বাড়ছে আপনার গাড়ির হর্নের আওয়াজ।তবে আপনি কি জানেন আপনার অস্থিরতার বহিঃপ্রকাশ এই হর্ন ক্ষতি করছে কাদের?পৃথিবীর অন্যতম সুন্দর জীব পাখিদের।

সম্প্রতি এক গবেষণা সামনে এনেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। গাড়ির হর্নের আওয়াজ আয়ু কমাচ্ছে পাখিদের। জার্মানির ম্যাক্স প্ল্যাঙ্ক পক্ষিবিদ্যা ইন্সটিটিউট ও নর্থ ডাকোতা স্টেট ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানিদের গবেষণা বলছে, ট্রাফিকের আওয়াজ অস্ট্রেলিয় বংশোদ্ভূত জেব্রা ফিঞ্চেসদের টেলোমেয়রের দীর্ঘতা হ্রাস করছে। টেলোমেয়র হল ক্রোমোজোমের শেষাংশ, যা জিনকে ক্ষয় থেকে রক্ষা করে।আর এই টেলোমেয়রের কমে যাওয়া থেকেই পাখিদের জীবনযাপনের মেয়াদ কমছে হুহু করে।

‘ফ্রন্টিয়াস ইন জুওলজি’তে প্রকাশিত রিপোর্ট থেকে জানা যায়,খাঁচায় থাকা জেব্রা ফিঞ্চেসদের তুলনায় যারা এই জনবহুল পরিবেশ বা ট্রাফিকের আওয়াজের মধ্যে থাকে, তাদের ক্ষেত্রে ক্রোমোজমের হ্রাস দ্রুত গতিতে হয়।পাশাপাশি পাখিটির জন্মের আগে যদি তার মা-বাবা ঐ পরিবেশে থাকেন সেক্ষেত্রেও এই একই সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে তারা। ফলত কমে আসছে জীবনকাল।

প্রসঙ্গত,জেব্রা ফিঞ্চেসরা স্বাভাবিক পরিবেশে মুক্ত অবস্থায় ৫ বছর অব্দি বেঁচে থাকতে পারে। অন্যদিকে খাঁচায় থাকা পাখিদের জীবনকাল অনেকটাই বেশী, প্রায় ৯ থেকে ১২ বছর। যদিও এই গবেষণার অন্যতম পুরোধা ব্যক্তি ডাঃ সুই অ্যানের কথায়,’পাখিরা এই শব্দবহুল শহরাঞ্চলে ধীরে ধীরে অভিযোজিত হচ্ছে’।

গবেষক আদ্রিয়ানা ডোরাডো করেয়া জানিয়েছেন,’আমাদের গবেষায় উঠে এসেছে, শহরাঞ্চলের অন্যান্য সব দূষণকে ছাপিয়ে টেলোমেয়র ক্ষয়ের প্রধান কারণ হিসেবে উঠে এসেছে ট্রাফিকের শব্দদূষণ’।

পাশাপাশি তিনি আরও বলেন,’এই গবেষণা থেকে আমরা জানতে চাইছি এই কৃত্রিম দূষণের ফলেই কি শহর ও গ্রামাঞ্চলের পরিবেশে বসবাসকারী পাখিদের জীবনকালের তফাৎ ঘটছে?’ গবেষকরা জানাচ্ছেন, জন্মের পর ১৮ থেকে ১২০ দিন পাখিদের জীবনের ক্ষেত্রে জটিল সময়।

এই সময়কালের মধ্যেই কৃত্রিম শব্দের দ্বারা সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয় তারা। এই সময়কালের মধ্যেই জেব্রা ফিঞ্চেসরা গান গাইতে শেখে সেসময় এই কৃত্রিম আওয়াজ তাদের বিশেষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে।

আরও পড়ুন: ২৪ বছর পর ফের মাটির নীচে মেট্রো-স্টেশন পেল কলকাতা

পাশাপাশি অন্য একটি গবেষণায় দেখা গেছে শিল্পজাত বা ট্রাফিকের শব্দ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত জেব্রা ফিঞ্চেসরা খাঁচায় থাকা জেব্রা ফিঞ্চেসদের থেকে আলাদা ভাবে গান গায়।

প্রসঙ্গত,২০১৬ সালের একটি গবেষণা জানিয়েছিল ট্রাফিকের শব্দ বিশ্বজুড়ে পাখিদের ক্ষতি করছে। আর এই কৃত্রিম শব্দের জন্যই তারা আশঙ্কাধ্বনি শুনতে পাওয়ার ক্ষমতা হারাচ্ছে।
সর্বোপরি আপনি যদি এই দূষণের লাগাম না টানেন তাহলে জীবন বাঁচাতে শুধু খাঁচার ভিতরেই থেকে যেতে হবে অচিন পাখিদের।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও