বোলপুর: বোমা বাঁধতে গিয়ে বিপত্তি। বোমা ফেটে হাত উড়ল এক তৃণমূল নেতার। বীরভূমের পাড়ুইয়ের ল্যাবরাশ্বর গ্রামের ঘটনা। বোমা ফেটে গুরুতর জখম হয়েছেন আরও তিনজন। তড়িঘড়ি আহতদের উদ্ধার করে বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বিজেপির সংকল্প যাত্রা আটকাতেই বোমা বাঁধা হচ্ছিল বলে অভিযোগ স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের। যদিও বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার পাড়ুইয়ের ল্যাবরাশ্বর গ্রামের মাঠে বোমা বাঁধা চলছিল। অভিযোগ বোমা বাঁধছিলেন এলাকার তৃণমূল নেতা বাপি শেখ-সহ কয়েকজন। হঠাৎই বোমা ফেটে বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় চারদিক। এলাকায় হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায়।

এরই মাঝে গ্রামের কয়েকজন ছুটে যান গ্রামের মাঠে। রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় তৃণমূল নেতা বাপি শেখকে। উদ্ধার করা হয় গুরুতর জখম অবস্থায় পাশেই পড়ে থাকা আরও ৩ জনকে। তড়িঘড়ি ৩ জনকে বর্ধমানের একটি নার্সিংহোমে নিয়ে গিয়ে ভরতি করা হয়। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন বোমা ফেটে বাপির দুটি হাতেরই কবজি থেকে বাকি অংশ উড়ে গিয়েছে।

এদিন ঘটনাস্থল থেকে বোমা বাঁধার সরঞ্জামও উদ্ধার করা হয়েছে। বহুদিন ধরেই তৃণমূলের সঙ্গে যুক্ত বাপি শেখ। বর্তমানে তৃণমূলের বুথ সভাপতির দায়িত্ব সামলাচ্ছেন ওই নেতা। যদিও জখম তৃণমূল নেতার পরিবার তরফে এবিষয়ে কিছুই বলতে চায়নি।

এদিকে এলাকার বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, মঙ্গলবার পাড়ুইয়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের সর্মথনে দলের কর্মসূচি ছিল। বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা-সহ আরও কয়েকজন সেই কর্মসূচিতে যোগ দেবেন। বিজেপির সেই অভিনন্দন যাত্রার আগে এলাকা অশান্ত করতেই বাপি ও তার দলবল বোমা বাঁধছিল বলে অভিযোগ বিজেপি নেতাদের। এলাকায় বোমাবাজি করে আতঙ্ক তৈরির উদ্দেশ্য ছিল তৃণমূলের., এমনই অভিযএাগ বিজেপি নেতৃত্বের।

অন্যদিকে, বিজেপির তোলা সব অভিযোগই অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV