নয়াদিল্লি: হিংসা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সোশ্যাল মিডিয়ায় তথ্যর সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন সেনা প্রধান বিপিন রাওয়াত৷ তিনি মনে করেন, সামাজিক মাধ্যমে তথ্য ও পরিসংখ্যান বহু ক্ষেত্রেই বিকৃত থাকে৷ কিন্তু মানুষের মধ্যে তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ায় বিভ্রান্তি ছড়ায়৷ সমস্যা সমাধানে বৈপ্লবিক পদক্ষেপ করে ফেলেন জনতা৷ যার জেরেই অশান্তি দানা বাঁধে৷ উদাহরণ হিসাবে তিনি তুলে ধরেন জম্মু-কাশ্মীরের কথা৷

আরও পড়ুন: বিপুল ভোটে উপ-নির্বাচনে জয়ী মেয়র ফিরহাদ হাকিম

নয়াদিল্লিতে এক সাক্ষাৎকারে সেনাপ্রধান জানান, আমাদের দেশে এই বৈপ্লবিক পদক্ষেপের হার হঠাৎ করেই বেড়ে গিয়েছে৷ বহু ক্ষেত্রেই ধর্মের দোহাই দিয়ে মিথ্যে তথ্য পরিবেশন করা হচ্ছে সমাজে৷ যার শিকার হচ্ছেন যুব সমাজ৷ তথ্য ও পরিসংখ্যান সত্য কিনা তা যাচাই করে দেখা প্রয়োজন৷

সামাজিক মাধ্যমে বিকৃত তথ্যের ফলে জনমানসে বিরূপ প্রতিক্রিয়া হচ্ছে৷ একেই সুযোগ হিসেবে কাজে লাগাচ্ছে দেশদ্রোহীরা৷ তাদের উস্কানিতে সমাজে সমাজে অশান্তি ও হিংসার বাতাবরণ তৈরি হচ্ছে৷ সামাজিক মাধ্যম কর্তৃপক্ষের বিষয়টি দেখা উচিত বলে মনে করেন সেনা প্রধান৷

আরও পড়ুন: ব্র্যান্ড ‘নমো’, নির্বাচনের আগে আশার আলো বিজেপিতে

বিপিন রাওয়াতের কথায় উদাহরণ হিসাবে উঠে আসে কাশ্মীর প্রসঙ্গ৷ সেখানে যুব সমাজের অসন্তোষের অন্যতম কারন ভুল তথ্যের উপর ভিত্তি করা৷ মনে করেন সেনা প্রধান৷ এক্ষেত্রে আরও সচেতনতার প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করেন তিনি৷