নয়াদিল্লি: ৩০ মে দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেবেন নরেন্দ্র মোদী৷ দেশ বিদেশ থেকে নেতারা আসবেন শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে৷ আমন্ত্রিতদের তালিকাও তৈরি৷ তালিকা দেখে স্পষ্ট, মোদীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে চাঁদের হাট বসছে রাষ্ট্রপতি ভবনে৷

মোদী মানেই চমক৷ গতবছর সার্কগোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির রাষ্ট্রনেতাদের আমন্ত্রণ জানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন নমো৷ এবারও থাকছে চমক৷ জানা গিয়েছে বিআইএমএসটিই গোষ্ঠীর নেতাদের নাম আমন্ত্রিতদের তালিকায় রাখা হয়েছে৷ অনেকের মনেই প্রশ্ন উঠছে কী এই বিআইএমএসটিই?

বিআইএমএসটিই হল বে অফ বেঙ্গল ইনিসিয়েটিভ ফর মাল্টি সেক্টরাল টেকনিক্যাল এন্ড ইকোনমিক কোঅপারেশন৷ সার্কের মতো এটিও একটি অর্গানাইজেশন৷ দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলিকে নিয়ে তৈরি৷ ভারত ছাড়া এর গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলি হল বাংলাদেশ, ভূটান, মায়ানমার, নেপাল, শ্রীলঙ্কা এবং থাইল্যান্ড৷ এর বাইরে ক্রেজ রিপাবলিকের প্রেসিডেন্ট ও মরিশাসের প্রধানমন্ত্রীকে মোদীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে৷ উল্লেখ্য, ক্রেজ রিপাবলিকের প্রেসিডেন্ট বর্তমানে সাংহাই কোঅপারেশন অর্গানাইজেশনের চেয়ারম্যান৷

শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে বিদেশি রাষ্ট্রনেতাদের আমন্ত্রণ জানানোর মধ্যে ভারত সরকারের বৈদেশিক নীতির ঝলক খুঁজে পাওয়া যায়৷ ভারত সরকারের নীতিই হল ‘Neighbourhood First’৷ সেই লক্ষ্যেই গতবার প্রতিবেশি দেশের রাষ্ট্রনেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল৷ এবারও তার ব্যতিক্রম হল না৷