নয়াদিল্লি: জাতীয় পরিসংখ্যান কমিশন (এনএসসি)-এর চেয়ারম্যান হলেন এক বাঙালি। আইএসআই-এর প্রাক্তন ডিরেক্টর বিমল কুমার রায়কে কমিশনের চেয়ারম্যান করা হয়েছে। তিনি ‘পদ্মশ্রী’ জয়ী দেশের বিশিষ্ট পরিসংখ্যানবিদ।

এছাড়াও কমিশনের সদস্য হলেন আরও দুই বাঙালি পরিসংখ্যানবিদ। এই প্রথমবার একসঙ্গে তিন বাঙালি পরিসংখ্যান কমিশনে। স্বাভাবিকভাবেই বিষয়টি বাঙালির গর্বের।

অধ্যাপক বিমল কুমার রায় তিন বছর থাকবেন চেয়ারম্যান পদে। সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন আরও দুই বাঙালি পরিসংখ্যানবিদ। অধ্যাপক পুলক ঘোষ ও অধ্যাপক গুরুচরণ মান্না।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার নিয়োগ কমিটি শুক্রবার কমিশনের চেয়ারম্যান ও সদস্যদের নাম ঘোষণা করেছে। ৬ সদস্যের কমিশনে এসেছেন বিশিষ্ট পরিসংখ্যানবিদ অধ্যাপক কিরণ পাণ্ড্য। আর পদাধিকার অনুযায়ী কমিশনে রয়েছেন ‘নীতি আয়োগ’-এর সিইও অমিতাভ কান্ত ও কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান মন্ত্রকের সচিব প্রবীণ শ্রীবাস্তব।

নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের কৃতী ছাত্র বিমল কুমার রায়। ২০১০ থেকে ২০১৫, এই পাঁচ বছর অধিকর্তার দায়িত্বে ছিলেন ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিক্যাল ইনস্টিটিউটে (আইএসআই)। পরিসংখ্যান তত্ত্বে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ২০১৫-য় তিনি পান ‘পদ্মশ্রী’।

ডিরেক্টর পদে মেয়াদ ফুরিয়ে যাওয়ার পর বর্তমানে আইএসআইয়ের রাজচন্দ্র বোস সেন্টার অফ ক্রিপ্টোলজি অ্যান্ড সিকিওরিটির দায়িত্বে রয়েছেন তিনি। পুলক বাবু বেঙ্গালুরুর ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ ম্যানেজমেন্টের (আইআইএম) অধ্যাপক। আর গুরুচরণ বাবু অধ্যাপক ইনস্টিটিউট অফ হিউম্যান ডেভেলপমেন্টে (আইএইচডি)।