কলকাতা:  দুপুর দুটো নাগাদ বাগডোগরা বিমানবন্দরে নামার কথা ছিলেন মোর্চা প্রধান বিমল গুরুংয়ের। কিন্তু সেখানে নামার পরেই গ্রেফতার করা হতে পারে। সেই মতো নাকি ওত পেতে রয়েছে সিআইডি। সেই খবর সূত্র মারফৎ বিমল গুরুংয়ের কাছে পৌঁছে যায়। এরপরেই সতর্ক হয়ে যান মোর্চা প্রধান এবং রোশন গিরি। টিকিট কেটেও শেষ মুহূর্তে বাগডোগরা বিমান ধরলেন না তাঁরা। তবে সূত্রে জানা গিয়েছে, সবার নজর এড়িয়ে সড়ক পথে দার্জিলিং ঢুকতে পারেন বিমল গুরুং। তবে গোয়েন্দারা নিশ্চিত এর মধ্যেই দার্জিলিংয়ে ঢুকতে পারেন মোর্চা সুপ্রিমো। সেই মতো সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে প্রশাসনকে।

বাগডোগরা বিমানবন্দরে নামলেই গ্রেফতার করা হতে পারে রোশন গিরি এবং বিমল গুরুং। সেই মতো বিমানবন্দর পুরো ঘিরে ফেলে গোয়েন্দা এবং পুলিশ। ফলে বিপদ আঁচ করতে পেরেই আসন বুক করেও বিমানে ওঠেননি তাঁরা। সিআইডি আধিকারিকরা মনে করছেন, বিমল গুরুং সম্ভবন আগাম জামিনের আর্জির দিকে তাকিয়ে রয়েছেন। সিআইডিও নজর রাখছে সেদিকে।

অন্যদিকে গুরুং আসছেন! এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই বাগডোগরা বিমানবন্দরে ভিড় জমান গুরুংপন্থীরা। যাদের মধ্যে ২ গুরুংপন্থী নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের নাম রোশন রাই ও যোগেশ প্রধান বলে জানা গিয়েছে।