ইসলামাবাদ: পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা না করার জন্য পাকিস্তানকে ৫০০ কোটি ডলার দিতে চেয়েছিলেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন। বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। সেইসময় প্রধানমন্ত্রী পদে ছিলে শরিফই। ১৯৯৮ তে নিউক্লিয়ার টেস্ট বন্ধ করার জন্য নওয়াজ শরিফকে ওই টাকার অআফর দেওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: শরিফের পুতুল সরকার! সেনার হুমকিতে বাতিল প্রধানমন্ত্রীর আদেশ

বুধবার সন্ধেয় পঞ্জায়ের সিয়ালকোটে এক রাজনৈতিক সমাবেশে এই বিস্ফোরক তথ্য দেন শরিফ। তিনি বলেন, ‘দেশের জন্য না ভাবলে আমি ওই টাকা নিয়ে নিতেই পারতাম। দেশের প্রতি সততা বজায় রাখতেই ওই টাকা নিইনি আমি।’ সম্প্রতি দুর্ণীতির অভিযোগে কার্যত দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে নওয়াজ শরিফের। পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টে চলছে মামলা। পানামা পেপারস মামলায় নাম জড়িয়েছে নওয়াজ শরিফ ও তার পরিবারেরও। আর সেই মামলা চলাকালীনই এই মন্তব্য করে নওয়াজ ভাবমূর্তি বজায় রাখার চেষ্টা করছেন বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

ভারত পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা করার পরেই পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা করে পাকিস্তান।

আরও পড়ুন: সন্ত্রাসবাদ নির্মূল করতে মুসলিম দেশগুলিকে এগিয়ে আসার আহ্বান নওয়াজ শরিফের

পানামা পেপার মামলায় পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ছেলে হুসেন নওয়াজকে কিছুদিন আগেই জিজ্ঞাসাবাদ করে পাক সুপ্রিম কোর্টের যৌথ তদন্তকারী দল বা joint investigation team(JIT) ৷ এই জিজ্ঞাসাবাদের সময় হুসেনের সঙ্গে তার আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন, কিন্তু জেআইটি তাঁর আইনজীবীর উপস্থিতিতে আপত্তি জানায়৷ তাঁদের বক্তব্য, আদালতের অনুমতির পরই তিনি আইনজীবীর সাহায্য নিতে পারবেন৷ এই মামলায় জড়ির নওয়াজের মেয়ে মরিয়ম শরিফও।

আরও পড়ুন: বন্ধুত্বে বড় ধাক্কা! শরিফকে এড়িয়ে গেলেন চিনা প্রেসিডেন্ট