স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: বাইক ছিনতাই করে নিয়ে পালিয়ে গিয়েও হল না শেষরক্ষা। চোর হিসেবে পরিচিতি থাকার কারণেই ধরা পরে গেল ছিনতাইবাজ। আর তাতেই জুটল গণধোলাই। অভিযুক্ত ছিনতাইবাজের নাম বিট্টু আলি।

আরও পড়ুন- তৃণমূলে নাম লেখাতেই মেয়ের চাকরি, দুর্নীতির অভিযোগ পরেশের বিরুদ্ধে

ঘটনাটি উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ঘোলা থানা এলাকার। পুলিশের সামনেই চলল ব্যাপক গনধোলাই। পরে পুলিশ উত্তেজিত জনতার হাত থেকে বিট্টু আলি নামে ওই বাইক চোরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এই ঘটনায় বিট্টু সহ তার আরও দুই সাগরেদকেও গ্রেফতার করেছে ঘোলা থানার পুলিশ ।

আরও পড়ুন- NRC তালিকায় ১২০০ কোটি টাকা জলে দিয়েছে বিজেপি: কংগ্রেস

বৃহস্পতিবার ঘোলা এলাকারই বাসিন্দা রজত মুখোপাধ্যায় তার বাইকটি একটি দোকানের সামনে দাঁড় করিয়ে দোকানে যান জিনিস কিনতে। মুহূর্তের মধ্যে দোকান থেকে বেরিয়ে দেখেন তার লক করা বাইক উধাও হয়ে গিয়েছে। এরপরই খোঁজাখুঁজি শুরু হয় এলাকা জুড়ে। রাস্তার পাশে বিভিন্ন এলাকায় বাইকের সন্ধান করতে করতেই কুখ্যাত দুষ্কৃতি বিট্টুর বাড়ির ভিতরে ওই বাইক দেখতে পান স্থানীয়রা। তখনই নিজের হারিয়ে যাওয়া বাইক খুঁজে পান রজতবাবু।

আরও পড়ুন- অসংখ্য মহিলার সঙ্গে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসে অভিযুক্ত যুবক

এরপরই স্থানীয় সাধারন মানুষ চড়াও হয় দুষ্কৃতি বিট্টুর উপর। তাকে গণপ্রহার দেয় উত্তেজিত জনতা। উত্তেজিত জনতার হাত থেকে বিট্টুকে পুলিশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে এদিন দুপুরের মধ্যে তার আরও দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করে।

আরও পড়ুন- ‘নওয়াজ দেশকে লুটেছে, তুমি সেভাবেই আমার টাকা লুট করেছ’, ভাইরাল ভিডিও!

ঘোলা থানার পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে। এদিকে সোদপুর, ঘোলা, আগরপাড়া প্রভৃতি অঞ্চল থেকে গত কয়েকদিনে বেশ কয়েকটি বাইক ও অটো চুরি হয়েছে বলে স্থানীয় বাসিন্দারা পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিল। সেই গাড়ি চুরি চক্রে এই বিট্টু ও তার সাঙ্গোপাঙ্গোরা জড়িত আছে বলে পুলিশের কাছে সন্দেহ প্রকাশ করেছে এলাকাবাসী। ঘোলা থানার পুলিশ সমগ্র ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।