পাটনা:আবারও উন্নাওয়ের ঘটনার ছায়া। ধর্ষণের চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় তরুণীকে জ্য়ান্ত জ্বালিয়ে দিল যুবক। বিহারের মুজফ্ফরপুরের ঘটনা। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি মাসের ৭ তারিখে তেইশ বছরের তরুণী কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে প্রতিবেশী যুবক। এর আগেও বেশ কিছু দিন ধরে ওই তরুণীকে উত্তক্ত করত ওই যুবক। প্রতিবেশী যুবকের আচরণের জেরে টিউশনি পড়তে যাওয়াও একপ্রকার বন্ধ হয়ে গিয়েছিল ওই তরুণীর।

চলতি মাসের ৭ ডিসেম্বর আচমকাই তরুণীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে প্রতিবেশী যুবক। তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে ওই যুবক। ধর্ষণে বাধা পেয়ে এরপর তরুণীকে বেধড়ক মারধর করা হয়। তরুণীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। তরুণীর চিৎকার শুনে বাড়িতে ছুটে যান প্রতিবেশীরা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তরুণীকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। শারীরিক পরিস্থিতির অবনতিতে পাটনার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভরতি করা হয় তরুণীকে। একটানা ১০ দিন ধরে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই চালিয়ে যান ওই কলেজছাত্রী। শেষমেশ সোমবার রাতে ওই তরুণীর মৃত্য়ু হয়। পাটনার ওই বেসরকারি হাসপাতাল সূত্রে খবর, তরুণীর দেহের প্রায় ৯৫ শতাংশ অংশ পুড়ে গিয়েছিল।

তদন্তে নেমে অভিযুক্ত ওই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মুজাফফরপুরের অহিয়াপুর থানায় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে তরুণীর পরিবার। বিহারের মুখ্যমন্ত্রীর কাছে বিচার চেয়েছে তরুণীর পরিবার। হায়দরাবাদের তরুণী পশু চিকিৎসককে গণধর্ষণ করে গায়ে আগুন ধরিয়ে খুন করা হয়েছিল। উন্নাওয়ে ধর্ষণের শিকার তরুণীকে আদালতে নিয়ে যাওয়ার পথেই পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করা হয়। পরে হাসপাতালে ভরতি থাকাকালীন মৃত্যু হয় তরুণীর। হায়দরাবাদ, উন্নাওয়ের ঘটনার পুনরাবৃত্তি মুজাফ্ফরপুরেও।

উন্নাও থেকে শুরু করে হায়দরাবাদ, আর এবার ফের একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি বিহারের মুজাফ্ফরপুরে। দেশজুড়ে একের পর এক ধর্ষণের ঘটনায় বেড়েই চলেছে ক্ষোভ। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা বা ধর্ষণ নিয়ে কড়া আইন কোনও কিছুই কমাতে পারছে না নারকীয় এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি। হায়দরাবাদে তরুণীকে ধর্ষণ করে গায়ে পেট্রোল ঢেলে জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। তদন্তে নেমে তড়িঘড়ি অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে ঘটনার পুনর্নির্মাণ করাতে অভিযুক্তদের নিয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। পুলিশের হাত থেকে পালানোর চেষ্টা করে ধৃতরা। পুলিশের উপর তারা হামলা চালায় বলেও দাবি। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ গুলি চালালে ৪ অভিযুক্তের মৃত্য়ু হয়।

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I