পাটনা: কেন্দ্রে এনডিএ সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে বিজেপি সরকার গঠন করেছে। নরেন্দ্র মোদী সরকার দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম নির্বাচনের মুখোমখি বিজেপি। যতটা সহজ মনে হচ্ছিল ততটা সহজ লড়াই হচ্ছে না হরিয়ানা এবং মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচনে। পাশাপাশি উপনির্বাচনেগুলিতেও ছবিটা কিছু আলাদা নয়। বুথ ফেরত সমীক্ষার সঙ্গে পার্থক্য হচ্ছে তা ফলাফলের ট্রেন্ড দেখেই কিছুটা হলেও বোঝা যাচ্ছে। কংগ্রেসমুক্ত ভারত গড়ার প্রচেষ্টা কিছুটা হলেও কঠিন হচ্ছে তা নিয়েও সন্দেহ প্রকাশের জায়গা নেই।

২০২০ সালে বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে উপনির্বাচনেকে সেমি-ফাইনাল বলা যেতেই পারে। তাই বলা বাহুল্য যে এই নির্বাচনের ফলাফল গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তবে বর্তমান ছবি বলছে শাসক এনডিএ সরকারের পারফরম্যান্স খুব আশানুরূপ কিছু নয় তাই চাপও বেড়েছে।

কিন্তু সমস্তিপুর লোকসভা সিটে, লোক জনশক্তি পার্টি স্বমহিমায় নিজেদের জায়গা সুরক্ষিত করেছে যা সাংসদ রাম চন্দ্র পাশোয়ানের মৃত্যুর জন্য ফাঁকা ছিল। ছেলে প্রিন্স রাজ কংগ্রেসের অশোক কুমারের থেকে ৮০ হাজার ভোটে এগিয়ে আছে সমস্তিপুর লোকসভা সিটে।

কিষাণগঞ্জে বিজেপির অবস্থা বেশ খারাপ। এআইএমআইএম সেখানে বেশ এগিয়ে। এইবার বিধানসভা নির্বাচনে এই দল বেশ অনেকটা শক্তি বাড়িয়েছে। তাঁরাই যে এইবার তাঁদের অস্তিত্বের প্রমাণ দিচ্ছে তা নিয়েও কোন সন্দেহ নেই।

আগামী বছর বিহারে বিধানসভা নির্বাচন, তার আগে সোমবার সেই রাজ্যে অনুষ্ঠিত হয় পাঁচটি বিধানসভা এবং একটি লোকসভা আসনে উপনির্বাচন। সমস্তিপুর লোকসভা নির্বাচন ছাড়াও বিধানসভা উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় রাজ্যের কিষাণগঞ্জ, নাথনগর, বেলহার, সিমরি বক্তিয়ারপুর এবং দারাউন্দা বিধানসভা আসনে।

সিমরি বক্তিয়ারপুরে এগিয়ে রয়েছেন জেডিউ প্রার্থী লক্ষ্মীকান্ত মণ্ডল। এর আগে এই আসনটি জেডিউ-র দখলেই ছিল। নাথনগর কেন্দ্রে এগিয়ে রয়েছেন আরজেডি প্রার্থী জাফর আলম। এই আসনে জেডিউ প্রার্থী অরুণ কুমারের সঙ্গে তাঁর হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে। এর আগে এই আসনটি জেডিউ-র দখলেই ছিল। বেলহার কেন্দ্রে এগিয়ে রয়েছেন আরজেডি প্রার্থী রামদেও যাদব। এর আগে এই আসনটি জেডিউ-র দখলেই ছিল। দারাউন্দা বিধানসভা আসনে এগিয়ে রয়েছেন নির্দল প্রার্থী করণজিৎ সিং। এর আগে এই আসনটি দখলে ছিল জেডিউ-র। কিষাণগঞ্জে এগিয়ে এআইএমআইএম-র প্রার্থী কামরুল হুদা। এর আগে এই আসনটি কংগ্রেসের দখলে ছিল।

লোকসভা ভোটে ৪০ টির মধ্যে ৩৯টি সিট জেতার ঠিক তিনমাস পরেই বিহারে জোট সরকারের এই খারাপ ফল দেখা যাচ্ছে যা বেশ অবাক করা।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও