নয়াদিল্লি: করোনা আক্রান্ত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। রবিবার তিনি নিজেই এমনটা জানিয়েছেন। ট্যুইট করে সেই খবর জানান বিজেপির এই শীর্ষ নেতা।

এদিন ট্যুইটারে তিনি জানিবেছেন, গত কয়েকদিন ধরে করোনার উপসর্গ দেখা দেওয়ায় টেস্ট করান তিনি। এদিন তাঁর রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তিনি জানিয়েছেন যে তাঁর শারীরিক অবস্থা ভালোই আছে। তবু, চিকিৎসকের পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

অমিত শাহ সতর্ক করে বলেন, ‘গত কয়েকদিনে যাঁরা আমার সংস্পর্শে এসেছেন তাঁরা দ্রুত নিজেদের আইসোলেট করুন নিজেদের।

বিভিন্ন ভার্চুয়াল জনসভাতে বক্তব্য রেখেছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী। সেই মঞ্চেই উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য নেতারা। তাঁদেরকে ঘিরে চিন্তার ভাজ পড়ছে আম জনতার। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তিনি সংস্পর্শে এসেছেন কিনা এ নিয়েও জল্পনা তুঙ্গে। সামনেই রাম মন্দিরের ভূমি পূজা। তাঁর উপর কি এর কোনও প্রভাব পড়বে! সে প্রশ্নও উঠছে।

দিল্লির করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উল্লেখ্যযোগ্য ভূমিকা নেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সম্প্রতি দিল্লি সরকারের বিভিন্ন আধিকারিকের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি।

দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। শেষ ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্ত হলেন আরো ৫৪ হাজার ৭৩৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৮৫৩ জনের।
নতুন করে এই সংক্রমণ ও মৃত্যুর জেরে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ লক্ষ ৫০ হাজার ৭২৪ জন। এর মধ্যে অ্যাক্টিভ কেস রয়েছে ৫ লক্ষ ৬৭ হাজার ৭৩০ টি। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১১ লক্ষ ৪৫ হাজার ৬৩০ জন। মোট মৃত্যু সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ৩৭ হাজার ৩৬৪ তে।

করোনাকে বশে আনতে বিশ্বের প্রায় সমস্ত দেশই কোমড় বেঁধে নেমে পড়েছে ভ্যাক্সিন আবিষ্কারের কাজে। বিজ্ঞানীদের দিনরাত এক করা অক্লান্ত পরিশ্রম এবং আলোচনা গবেষণা চলছে শুধুমাত্র করোনার দাপট থেকে বিশ্ববাসীকে মুক্তি দিতে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.