স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ডিএ মামলায় রাজ্যের আরজি খারিজ কলকাতা হাইকোর্টে৷ মহার্ঘ্য ভাতার রায় পুনর্বিবেচনার আরজি খারিজ করেছে হাইকোর্ট৷ ডিএ আইনী অধিকার, রায় দিয়েছে হাইকোর্ট৷ আগামী ১৩ই মার্চ স্যাটে মামলার রায় দানে আর বাধা থাকছে না৷ এদিন হাইকোর্টে রাজ্যের রিভিউ পিটিশন খারিজ হয়েছে৷ বিচারপতি হরিশ ট্যাণ্ডন ও বিচারপতি শেখর ববি শরাফের ডিভিশন বেঞ্চে এদিন জানিয়েছে কেন্দ্রীয় হারে এ রাজ্যের কর্মীরা ডিএ পাবেন কীনা, তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবে স্যাট৷

আরও পড়ুন : গ্র্যাচুইটিতে আয়কর ছাড়ের ঊর্ধ্বসীমা বেড়ে দ্বিগুণ

পাশাপাশি দিল্লি ও চেন্নাইয়ের সরকারি কর্মচারীদের হারেই এরাজ্যের সরকারি কর্মীরা ডিএ পাবে কীনা তাও সিদ্ধান্ত নেবে স্যাট বলে জানানো হয়েছে৷ মহার্ঘ ভাতা নিয়ে রাজ্যের পুর্নবিবেচনার আবেদন খারিজ করে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার মামলার রায় দিতে গিয়ে হরিশ ট্যাণ্ডন ও বিচারপতি শেখর ববি শরাফের ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, কেন্দ্রের হারে কর্মীরা ডিএ পাবেন কি না তা হাইকোর্ট সিদ্ধান্ত নেয়নি।

তাছাড়া রাজ্যের পেশ করা তামিলনাডু বিদ্যুৎ পর্ষদের কর্মচারিদের মামলায় সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে ছিল, রাজ্যসরকারের আর্থিক অবস্থার ওপর ডিএ দেওয়া হবে কি না তা নির্ভর করছে। এক্ষেত্রে আদালত জানায়, এই পরবর্তী নির্দেশের প্রেক্ষিতটা আলাদা, তাছাড়া সেই বিষয়টি এই মামলার সঙ্গে যুক্ত নয়৷ সেই কারণে রাজ্যের পুনর্বিবচনার আবেদন খারিজ করে দেয় আদালত। ফের স্যাটে মামলাটি পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন : গানের টানে দুই বাংলার কাঁটাতারের বেড়া ছিঁড়েছিলেন বাঙালির ‘সীমান্ত গান্ধী’

মামলার রাজ্য সরকারের আবেদনে অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত জানিয়েছিলেন ৩১ শে মার্চ ২০১৮ সালে কলকাতা হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছিল রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ্য ভাতা আইনত বৈধ। গত ১৯ শে জানুয়ারি সেই মামলার রায় দেওয়ার কথা ছিল স্যাটের। কিন্ত রাজ্য সরকার জানায় তাঁরা কলকাতা হাইকোর্টে একটি রিভিউ পিটিশন দাখিল করেছেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি দেবাশিস কর গুপ্তের এজলাসে৷

দীর্ঘ মামলার শুনানির পর ফেব্রুয়ারি মাসে বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন ও বিচারপতি শেখর ববি শরাফের ডিভিশন বেঞ্চ মামলার শুনানি শেষে রায়দান স্থগিত রাখে৷ আজ সেই মামলার রায় দান হয়৷