কলকাতা: টলিপাড়ায় কানাঘুষো, তাসের ঘরের মতোই নাকি ভেঙে পড়েছে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। কিন্তু এই কালবৈশাখীতে দুমড়ে-মুচড়ে গেল সব। সুরিন্দর ফিল্মস আর শ্রী ভেঙ্কটেশ ফিল্মস- যুদ্ধ এবার সেয়ানে সেয়ানে।

সেলুলয়েডের পর্দা থেকে ওয়েবের পর্দা একে চুলও মাটি ছাড়তে নারাজ দু’পক্ষ। ওয়েবে টক্কর দিতে তাই, নতুন ব্যবসায়িক চালে, ‘হইচই’-এর প্রতিপক্ষ ‘আড্ডাটাইমস’-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধছে সুরিন্দর। টলিঅন্দরের খবর, কাল পয়লা বৈশাখে ঘোষণা করা হবে, এই নতুন সম্পর্কের।

শুধু তাই নয়! জানা যাচ্ছে, এবার থেকে সুরিন্দর-এর সমস্ত ছবি এবার থেকে দেখাবে ‘আড্ডাটাইমস’। এমনকি পোর্টালকে ওয়েব কন্টেন্ট তৈরি করতেও সাহায্য করতে পারে সুরিন্দর। এদিকে নাকি ‘গোগোল’কে নিয়ে ‘হইচই’ ও ‘আড্ডাটাইমস’-এর মধ্যে চলছে ঠান্ডা যুদ্ধ।

প্রসঙ্গত, ‘গোগোল’ নিয়ে একটি ওয়েব সিরিজ করতে চলেছে ‘হইচই’। প্রায় পুরো গল্পের সিরিজটি কিনে ফেলেছেন তাঁরা। কিন্তু বাধ সেধেছে চারটি গল্প। যে চারটি গল্পের রাইটস কিনেছে ‘আড্ডাটাইমস’। ফলে একটি গোগোলের বদলে এবার তৈরি হবে আরও একটি ‘গোগোল’। সব মিলিয়ে জমে উঠেছে যুদ্ধ! এখন দেখার ভাঁড়ে লক্ষ্মী কার সহায় হয়।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।