নয়াদিল্লি: উত্তর প্রদেশের কানপুরে ৮ পুলিশ কর্মী হত্যার মূল অভিযুক্ত বিকাশ দুবেকে গ্রেফতার করল পুলিশ। গত সপ্তাহে পুলিশের ওপর হামলা চালানোর পর থেকেই পলাতক ছিল এই কুখ্যাত দুষ্কৃতি।

সূত্র মারফত খবর, মধ্যপ্রদেশ থেকে এই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। একদিকে যখন তাঁর সহযোগী এনকাউন্টারে মারা যায়, তখনই তাঁকে হানা দিয়ে গ্রেফতার করে পুলিশ। এই বিকাশ দুবের নামে খুন, অপহরণ, দাঙ্গা, জোরজলুম করে টাকা আদায় সহ মোট ৬০ টি মামলা দায়ের রয়েছে।

বৃহস্পতিবার যখন একদিকে বিকাহ দুবেকে গ্রেফতার করা হয়, অন্যদিকে প্রায় এই একই সময়ে পুলিশের সঙ্গে এনকাউন্টারে নিহত হয় বিকাশ দুবের অন্যতম সহযোগী প্রভাত মিশ্র।

উত্তরপ্রদেশের আটজন পুলিশ সদস্যের হত্যার মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে হরিয়ানা পুলিশ যে তিন ব্যক্তিকে ফরিদাবাদে গ্রেফতার করেছিল তাঁদের মধ্যে একজন হলেন এই প্রভাত মিশ্র। ট্রানজিট রিমান্ডে ফরিদাবাদ থেকে কানপুর আনার সময় সে পালানোর চেষ্টা করলে পুলিশ তাঁকে গুলি করে।

ইউপি এডিজি প্রশান্ত কুমার বলেন, “গতকাল গ্রেপ্তার হওয়া তিন ব্যক্তির মধ্যে প্রভাত মিশ্র পালানোর চেষ্টা করার সময় পুলিশ তাকে গুলি করে, ফলে মৃত্যু হয় তাঁর।”

উল্লেখ্য, দুবের উপস্থিতি সম্পর্কে তথ্য পেয়ে ফরিদাবাদে হরিয়ানা পুলিশ অভিযান চালায়। সেই অপারেশনে কার্তিকে ওরফে প্রভাত, অঙ্কুর ও শ্রাবণকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁদের কাছ থেকে বেশ কিছু অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে উত্তরপ্রদেশের কানপুরে দুষ্কৃতীদের খোঁজে তল্লাশি চালাতে গিয়ে অপরাধীদের মুখোমুখি পড়ে প্রাণ হারান ৮ জন উত্তরপ্রদেশ পুলিশ কর্মী। এর মধ্যে এসপি পদমর্যাদার এক অফিসারও ছিলেন। জানা যায় পুলিশের ওপর এই হামলার মূল কারিগর ছিল বিকাশ দুবে। এরপর থেকেই তাঁর খোঁজ চালাচ্ছিল পুলিশ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.